মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দেবর নিহত, আহত ভাবী

মানবকণ্ঠ
ছবি - সংগৃহীত।

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১৬ এপ্রিল ২০২০, ২২:০৪

একদিকে করোনা ভাইরাসের আতংক অন্যদিকে সারারাত পড়েছে বৃষ্টি। চারদিন পর করবে বিয়ে, তাই তাড়াহুড়া করে নগর থেকে ভাবিকে নিয়ে চলে আসছিলেন বাড়িতে। বৃষ্টির পানিতে পিচ্ছিল রাস্তায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে দেবর ভাবি।

ঘটনাস্থলে দুইজনে গুরুতরভাবে আহত হন। দ্রুত এগিয়ে আসেন স্থানীয়রা উদ্ধার করে নিয়ে যান চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে মারা যান দেবর। ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার বড়উঠান ইউনিয়নের দৌলতপুর কেইপিজেড গেইটের সামনে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) সকালে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আনোয়ারা উপজেলার বরুমছড়া গ্রামের কাইছার হামিদ (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।

নিহত উপজেলার বরুমচড়া গ্রামের মৃত আবদুল হোসেনের পুত্র। এতে বাইকে পিছন সিটে বসা তার ভাবি আয়শা আকতার (২৬) গুরত্বভারে আহত হন। স্থানীয়দের চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় যুবকের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন আহত আয়শা আকতার।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কর্ণফুলীর শাহমীরপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নাছির উদ্দিন। তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হামিদের মৃত্যু হয়।

নিহতের বড় বোনের জামাই মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানান, তার বড়ভাইয়ের সাথে চট্টগ্রাম নগরের একটি মুদির দোকান করে সে। আগামী ২০ এপ্রিল বাঁশখালী এক জনৈকের মেয়ের সাথে তার বিয়ে ঠিক হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে কোনো অনুষ্ঠান ছাড়াই মেয়ে নিয়ে আসার কথাও রয়েছে। ভোরে মোটরসাইকেল করে ভাবীকে নিয়ে আসার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। বর্তমানে ভাবী চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

মানবকণ্ঠ/জেএস

 






ads