খাদ্য সহায়তা নিয়ে বেঁদে সম্প্রদায়ের পাশে ডিসি

খাদ্য সহায়তা নিয়ে বেঁদে সম্প্রদায়ের পাশে ডিসি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৯ মার্চ ২০২০, ১৬:৩৪

নীলফামারী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নিম্ন আয়ের ৩৩ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।  রোববার বিকেলে সদর উপজেলার ইটাখোলা ইউনিয়নের কানিয়াল খাতা গ্রামে অবস্থান নেয়া বেঁদে সম্প্রদায়ের মাঝে এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

একই সময় সেখানকার একশ’ জনকে মাস্ক প্রদান করেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী।

বিতরণকালে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আব্দুল মোত্তালেব সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আজাহারুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা সৈয়দ আবুল হায়াত, সহকারী কমিশনার বেলায়েত হোসেন, ইটাখোলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাফিজুর রশিদ মঞ্জু উপস্থিত ছিলেন।

নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলা থেকে আগত বেদেঁ সম্প্রদায়ের এসব মানুষ গেলো সাতদিন থেকে কর্মহীন হয়ে রয়েছেন। জেলা প্রশাসক বিষয়টি জানতে পেরে সরকারিভাবে এই ত্রাণের ব্যবস্থা করেন।

সেখানকার মুকুল হোসেন বলেন, এখানে আসার পর আমাদের কঠিন সমস্যায় পড়তে হয়েছে। ঠিকমত খেতে পারছি না। বাইরেও যাওয়া যাচ্ছে না। আজকে চাল, ডাল পেয়ে অনেক উপকার হলো।

স্বপ্না চৌধুরী নামে আরেকজন বলেন, আমরা সাঁপ খেলা দেখিয়ে উপার্জন করে থাকি। এর থেকে যা আয় হয় তা দিয়ে সংসার চালাতে হয়। গত এক সপ্তাহ থেকে কোনো রকমে বেঁচে আছি। আজ এসব পেয়ে কিনা উপকার হলো।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার বলেন, প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, পাঁচ কেজি আলু, দুই কেজি ডাল, ৫০০ গ্রাম তেল এবং এক কেজি লবন রয়েছে। নিম্ন আয়ের মানুষেরা যাতে কষ্টে না থাকেন সেজন্য বিষয়টি ডিসি স্যারকে জানালে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, নীলফামারী জেলায় দুর্যোগ মোকাবিলায় দুইশ’ মেট্রিক টন চাল এবং সাত লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। যা ইতোমধ্যে উপ-বরাদ্দ দেয়া হয়েছে উপজেলাগুলোর অনুকূলে।

তিনি বলেন, সংকটের এই সময়ে নিম্ন আয়ের মানুষেরা যারা প্রকৃতপক্ষে বঞ্চিত, তারা যেনো সঠিকভাবে এটা পান সেটি আমরা নিশ্চিত করতে চাই।

মানবকণ্ঠ/আরবি





ads







Loading...