করোনা সন্দেহ

ঠাকুরগাঁওয়ে একই পরিবারের পাঁচজন হাসপাতালে

ঠাকুরগাঁওয়ে একই পরিবারে পাঁচজন হাসপাতালে

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৮ মার্চ ২০২০, ২১:৫১,  আপডেট: ২৮ মার্চ ২০২০, ২১:৫৩

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ভেলাজান গ্রামের রুহুল আমিন ও তার পরিবারের ৫ সদস্যকে করোনা সন্দেহে শনিবার বিকেলে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি ঢাকা থেকে ৫ দিন আগে বাড়িতে ফিরেন বলে নিজেই একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস দেন।

সেখানে তিনি বলেন, আসার পর থেকে তিনি এরপর তার স্ত্রী ও দুই সন্তান জ্বর, সর্দি, কাশি, গলা ব্যাথায় ভুগছেন। আজ তার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে ভেলাজান গ্রামের চিকিৎসক কসিমউদ্দিনের কাছে যান। তিনি ঘটনা শুনে দ্রুত ঠাকুরগাঁও হাসপাতালে যাবার পরামর্শ দেন। এরপর ঘটনাটি এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি করে। স্থানীয় লোকজন ইউএনও আব্দুল্লাহ আল মামুনকে জানালে তিনি স্বাস্থ্য বিভাগের সহায়তায় তাদের সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

সদর হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ তোজাম্মেল হক জানান, যে ৫ জনকে আনা হয়েছে তারা সবাই একই পরিবারের সদস্য। তাদের সবার লক্ষণ একই রকম। তবে (রুহুল আমিন) এর অবস্থা সংকটাপন্ন। তিনি শতকরা ৮০ ভাগ শ্বাস নিতে ব্যর্থ হচ্ছেন। তাদের দ্রুত রংপুর মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আইডিসিআরের একটি প্রতিনিধি দল আজ গাইবান্ধা জেলায় আছেন। তারা আগামীকাল রংপুর মেডিকেলে তাদের পরীক্ষা করবেন।

তিনি আরো বলেন, এই রোগী ঢাকায় চাকরি করা কালে একজন বিদেশির সংস্পর্শে ছিলেন। তাকে ১৫ দিনের কোয়ারেন্টাইন দেয়া হয়। কিন্তু ৩ দিন পর তিনি নিজ গ্রাম ভেলাজানে চলে আসেন ৫ দিন আগে।

জেলা প্রশাসক কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, খবর পেয়ে ওই পরিবারের ৫ জনকে রংপুরে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। যেহেতু গতকাল তিনি মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেছেন সেহেতু পুরো এলাকা লকডাউন করবো।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...