বিধবাকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ আ'লীগ নেতার বিরুদ্ধে

মানবকণ্ঠ

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৬ মার্চ ২০২০, ১৮:১৮

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার সুজাতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হরবল্লভ চৌধুরীর বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন একই ইউনিয়নের খড়তলা গ্রামের মৃত রাম প্রসাদের স্ত্রী রাজরানী দাস। এ ঘটনায় গত শনিবার বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

লিখিত এজহার ঘেটে জানা যায়, আওয়ামী লীগ নেতা হরবল্লভ চৌধুরী প্রায়ই এই মহিলাকে অপ্রাসঙ্গিকভাবে যৌন নির্যাতনের নিমিত্তে নানা কু-প্রস্তাব ও প্রলোভন দিতেন। বিষয়টি তার ভাই জয় কুমার চৌধুরীর কাছে জানালে আসামি হরবল্লভ চৌধুরী আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। গত ১৭ মার্চ রাজরানী দাস নিজ বাড়ির টিউবওয়েলে হাত মুখ ধৌত করতে গেলে আগে থেকেই ওৎ পেতে থাকা হরবল্লভ চৌধুরী পেছন থেকে জাপটে ধরে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন।

একপর্যায়ে রাজরানী হরবল্লভের কাছ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ধস্তাধস্তি করায় তার পরনের কাপড় ছিড়ে ফেলেন আসামি হরবল্লভ চৌধুরী। পরে রাজরানী চিৎকার করলে আশেপাশের মানুষ এগিয়ে আসায় হরবল্লভ চৌধুরী দৌড়ে পালিয়ে যান।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে আসামি ও তার স্বজনরা এলাকার কতিপয় লোকদের নিয়ে আপস করার প্রস্তাব দেয়। পরে দুই তিনদিন পার হওয়ার পরও কোনো সমাধান দেয়নি তারা। আসামি হরবল্লভ চৌধুরী এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় প্রায়ই ওই নারী ও তার পরিবারের লোকজনকে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছেন তিনি। তাই রাজরানী দাস বাধ্য হয়ে থানায় সুবিচার চেয়ে আওয়ামী লীগ নেতা হরবল্লভ চৌধুরীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

এই বিষয়ে সুজাতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হরবল্লভ চৌধুরীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনাটি সম্পুর্ণ মিথ্যা। আমি এর কিছুই জানি না।

কথা হয় সুজাতপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মহিউদ্দিন সুমন এর সাথে । তিনি জানিয়েছেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্তাধীন আছে।

বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রঞ্জন কুমার সামন্ত’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা লিখিত অভিযোগ পাইনি। তবে ভিকটিম মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। আমরা তাকে লিখিত অভিযোগ দেয়ার জন্য বলেছি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তারপরেও আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

মানবকণ্ঠ/জেএস/হাসিব





ads







Loading...