করোনা এড়াতে পাথরখনি 'লকডাউন', বেতনের দাবিতে ধর্মঘট

মানবকণ্ঠ
ছবি - প্রতিবেদক

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৬ মার্চ ২০২০, ১৫:৪৩

দিনাজপুরের মধ্যপাড়া কঠিনশিলা খনির শ্রমিকেরা তাদের বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রেষ্ট কনসোর্টিয়াম’র (জিটিসি) কর্মকর্তাদের ১৪ ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। আগামী ৭ এপ্রিলের মধ্যে বকেয়াসহ চলতি মাসের বেতন পরিশোধ করার প্রতিশ্রুতি দিলে আজ বুধবার বেলা ১২টায় শ্রমিকরা অবরোধ প্রত্যাহার করেন।

জানা যায়, মধ্যপাড়া কঠিনশিলা খনির ঠিকারদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি’র অধিনে সহস্রাধিক বাংলাদেশি শ্রমিক খনির ভূ-গর্ভস্থ ও উপরিভাগে কাজ করেন। এসব শ্রমিককে গত ফেব্রুয়ারী মাসের বেতন পরিশোধ করা হয়নি। তাছাড়া চলতি মার্চ মাসের বেতন বকেয়া রেখে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টায় খনির উৎপাদনসহ সব বিভাগের কাজ বন্ধ ঘোষণা করে নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় জিটিসি।

জিটিসি’র ড্রিলিং এন্ড ব্লাষ্টিং অপারেটর মোঃ রফিকুল ইসলাম বুধবার বেলা ১ টায় মানবকণ্ঠকে বলেন, আমাদের শ্রমিকদের ফেব্রুয়ারির বেতন না দিয়ে মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে খনির কার্যক্রম বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে দেয়া হলে শ্রমিকদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

শামিম নামে আরেক শ্রমিক বলেন, বেতন দেয়া হয় মাত্র ৮ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা। দূর্মুল্যের বাজারে এ টাকায় শ্রমিকদের ১৫ দিনও চলে না।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মধ্যপাড়া কঠিন শিলাখনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) কামরুজ্জামান বলেন, জিটিসি’র কাছে শ্রমিকদের পাওনা রয়েছে ফেব্রুয়ারি মাসের পুরো বেতন। এছাড়াও চলতি মাসের বেতনও পাবেন তারা। তিনি আরও বলেন, ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশ করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন শুরু হয়েছে। আমরা জিটিসি’র সাথে কথা বলেছি। আগামী ৭ এপ্রিলের মধ্যে তাদের পাওনা পরিশোধ করার জন্য বলা হয়েছে। এব্যাপারে শ্রমিকদের আশ্বস্ত করা হয়েছে।

তবে এ ব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) যাবেদ পাটোয়ারীর সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও কল রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

মানবকণ্ঠ/এইচকে/মামুনুর





ads






Loading...