করোনাযুদ্ধ : বিশ্বের জন্য আশার আলো জ্বেলেছে চীন

ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৩ মার্চ ২০২০, ১১:৩৯

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে চীন আশার আলো জ্বেলেছে বলে মনে করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এ যুদ্ধে ভাইরাসটির বিরুদ্ধে চীন দারুণভাবে শক্ত অবস্থানে পৌঁছে গেছে। তাদের 'রণকৌশল' অন্য দেশগুলোও ব্যবহার করতে পারে কি না, এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এএফপির বার্তায় বলা হয়, চীনে গত চার দিনে স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত মাত্র একজন রোগী পাওয়া গেছে।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের ডিসেম্বরে দেশটির হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার পর যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, তা থেকে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রস আধানম গেব্রেইয়েসুস বলেন, করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে চীনের সফলতা বাকি বিশ্বের জন্য আশার আলো দিচ্ছে।

এ যুদ্ধে সুবিধাজনক অবস্থান তৈরি করতে চীনের যেসব বিষয় আলোচনা হচ্ছে, তার মধ্যে রয়েছে অবরুদ্ধ ও নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা, মাস্ক পরিধান, গণকোয়ারেন্টিন, সংহতি ইত্যাদি।

অবরোধ ও নিয়ন্ত্রণ

গত জানুয়ারি মাসে চীন উহান শহরকে কার্যকরভাবে অবরুদ্ধ করে। শহরের ১ কোটি ১১ লাখ জনসংখ্যাকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। পরে পুরো হুবেই প্রদেশের জন্যই এ ব্যবস্থা কার্যকর করা হয়। পাঁচ কোটি মানুষকে গণ–আইসোলেশনে পাঠানো হয় আর অন্যান্য অঞ্চলের মানুষকে কঠোরভাবে বাড়িতে থাকার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়।

গণসংহতি

হুবেই প্রদেশে কমপক্ষে ৪২ হাজার চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের হুবেই প্রদেশে পাঠানো হয় স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার জন্য। পিকিং ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য বিষয়ের অধ্যাপক ঝেং জিজিই বলেন, এ সময় ৩ হাজার ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হন এবং ১৩ জন মারা যান।

মাস্ক ও সতর্কতা

বার্তা সংস্থা সিনহুয়ার খবর অনুসারে চীন প্রতিদিন ১৬ লাখ মাস্ক উৎপাদন করেছে ওই সময়। অধ্যাপক ঝেংজিজিই বলেন, বিপুলসংখ্যক মানুষের ভাইরাসটি বহনের আশঙ্কার মধ্যে ব্যাপক হারে মাস্ক ব্যবহার ভাইরাসের বিস্তার রোধ করতে পারে।

উচ্চপ্রযুক্তির দেশটিতে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার বিষয়টি যেখানে সীমিত, সেখানে কোনো কোনো স্থানীয় কর্তৃপক্ষ নাগরিকদের জন্য ফোনে কিউআর কোড দেখানোর ব্যবস্থা করে। যেটি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার পরিস্থিতির ভিত্তিতে তাদের ‘সবুজ’, ‘হলুদ’ এবং ‘লাল’ চিহ্ন দেখায়। এর মাধ্যমে নাগরিকদের দেখানো হয়, তাঁরা বেশি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় যাচ্ছেন কিনা।

মানবকণ্ঠ/এইচকে





ads







Loading...