মাদারীপুরে খদ্দেরসহ দেহব্যবসার মূল হোতা আটক


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১৬ মার্চ ২০২০, ২০:৫৩

মাদারীপুর সদর উপজেলার পৌরসভাধীন পশ্চিম খাগদি এলাকার চায়না বেগম নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে অসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকা অবস্থায় দুই তরুণ-তরুণীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার পশ্চিম খাগদি এলাকার চায়না বেগমের বাড়িতে প্রায়ই অসামাজিক কর্মকাণ্ড হয় এমন অভিযোগ স্থানীয়দের। রবিবার রাতে ওই বাড়িতে খদ্দেরসহ চায়না বেগমকে স্থানীয়রা আটক করে। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ বাড়ির মালিক চায়না বেগমসহ ওই দুই তরুণ তরুনীকে আটক করে থানায় নিয়ে য়ায়। এদিকে এই ঘটনা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাড়ির মালিক চায়না বেগম একই এলাকার আবুল মোল্লার ছেলে সজিবের মাথায় আঘাত করে। তখন ৩ জন আহত হয় বলে দাবি স্থানীয়দের। আহত সজিবকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় নয়ন মোল্লা জানান, ‘দীর্ঘ দিন থেকে চায়না বেগম অসামাজিক কর্মকাণ্ড করে আসছে। বিভিন্ন এলাকা থেকে তরুণীদের এনে দেহ ব্যবসা করায়। এছাড়াও সে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। রবিবার রাতে বিষয়টি টের পেয়ে আমরা তাদের আটক করে থানায় খবর দেই। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এসময় চায়না একই এলাকার আবুল মোল্লার ছেলে সজিব মোল্লার মাথায় আঘাত করে গুরুতর জখম করে।’

চায়না বেগম দেহব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কাথা স্বীকার করে বলেন, এলাকার লোকজন আমাদের মারধোর করেছে।

মাদারীপুর সদর থানার এসআই মো. ইব্রাহিম জানান, ‘অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের মামলার মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।’

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads






Loading...