ওয়ালটন কারখানায় বাণিজ্যমন্ত্রী

ওয়ালটন কারখানায় বাণিজ্যমন্ত্রী
ওয়ালটন কারখানায় বাণিজ্যমন্ত্রী - ছবি : সংগৃহীত।

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৭ মার্চ ২০২০, ১৯:৩০

বাংলাদেশি ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তিপণ্য জায়ান্ট ওয়ালটনের কারখানা পরিদর্শনে এসেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

শনিবার (০৭ মার্চ) গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে আসেন তিনি।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন ও বাণিজ্যমন্ত্রীর স্ত্রী আইরীন মালবিকা মুনশি।

এর আগে, গত সপ্তাহে ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শন করেন তিন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী। তারা হলেন, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

আজ দুপুরে বাণিজ্যমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা ওয়ালটন কারখানায় পৌঁছালে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নূরুল আলম রেজভী, ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামছুল আলম, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম ও ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক রিফাহ তাসনিয়া স্বর্ণা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের উপ-ব‌্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলাম সরকার ও আলমগীর আলম সরকার, নির্বাহী পরিচালক হুমায়ূন কবীর, উদয় হাকিম, ইউসুফ আলী, লিয়াকত আলী প্রমুখ।

কারখানায় পৌঁছে বাণিজ্যমন্ত্রী প্রথমে ওয়ালটনের সুসজ্জিত ডিসপ্লে সেন্টার পরিদর্শন করবেন। এরপর তিনি ওয়ালটন এসির কয়েকটি নতুন মডেল উন্মোচন করবেন। পাশাপাশি ৫৫ ইঞ্চির নতুন মডেলের ফোর-কে টেলিভিশনও উন্মোচন করবেন তিনি। এরপর ওয়ালটনের রেফ্রিজারেটর ও কম্প্রেসর তৈরির প্রক্রিয়া সরেজমজিনে পরিদর্শন করবেন মন্ত্রী।

এছাড়া, তিনি বাংলাদেশের প্রথম এলিভেটর কারখানা, মোবাইল প্রজেক্ট, কম্পিউটার প্রজেক্ট, পিসিবি প্রজেক্ট, টিভি এসএমটি লাইন, এলপিজি বা এলডিপি প্রজেক্ট, মোল্ড অ‌্যান্ড ডাই এবং মেটাল কাস্টিং উৎপাদন প্ল্যান্ট পরিদর্শন করবেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বমানের প্রযুক্তিপণ্য উৎপাদনে ওয়ালটন একটি প্রশংসিত নাম। গাজীপুরের চন্দ্রায় বিশাল এলাকাজুড়ে স্থাপন করা হয়েছে ওয়ালটনের অত্যাধুনিক কারখানা। এখানে ফ্রিজ, টিভি, এসি, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, হোম ও ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স, লিফটসহ বিভিন্ন উচ্চমানের পণ্য তৈরি হচ্ছে।

উৎপাদনের পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়ন, মান নিয়ন্ত্রণ, আন্তর্জাতিক ব্যবসা ইউনিটসহ বিভিন্ন বিভাগ রয়েছে।

‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ লেখা বুকে নিয়ে ওয়ালটনের তৈরি আন্তর্জাতিক মানের পণ্য ইউরোপ, আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যাচ্ছে। বাংলাদেশি পণ্য দিয়ে এবার বিশ্বজয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে ওয়ালটন। দেশীয় হাই-টেক শিল্পের এই অগ্রগতি দেখার উদ্দেশ্যেই বাণিজ্যমন্ত্রী ওয়ালটন কারখানা পরির্দশনে এসেছেন বলে জানা গেছে।

মানবকণ্ঠ/এআইএস






ads