গোপালগঞ্জে দুই ভাষাসৈনিককে সংবর্ধনা

গোপালগঞ্জে দুই ভাষাসৈনিককে সংবর্ধনা

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৮:৪০

গোপালগঞ্জে ভাষাসৈনিকদের সংবর্ধনা ও আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার নজরুল পাবলিক লাইব্রেরি এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

অনুষ্ঠানে গোপালগঞ্জের ভাষাসৈনিক এ এম ফজলুর রহমান ও সুনীল কুমার দাসকে ক্রেস্ট ও উত্তোরিও পরিয়ে দেয়া হয়।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার সভাতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে দুই ভাষাসৈনিক তাদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন।

ভাষা সৈনিক এ এম ফজলুর রহমান স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে জানান, ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর গুলিবর্ষণের খবর গোপালগঞ্জে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে ছাত্র-জনতা রাস্তায় নেমে আসে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে স্কুল-কলেজে ধর্মঘটসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। এসব আন্দোলনের সম্মুখ ভাগেই থাকতেন এ এম ফজলুর রহমান।

১৯৫৪ সালে শহরের ব্যাংকপাড়াস্থ বঙ্গবন্ধুর বাড়ির ঐতিহাসিক আম বাগানে বাঁশ ও কাগজ দিয়ে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়। এ অপরাধে ২০ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১২টায় পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে ফরিদপুর সেন্ট্রাল জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। ৩ মাস কারাভোগের পর মুক্তি পান তিনি। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর একই দাবিতে সভা-সমাবেশ ও আন্দোলন সংগ্রামে ভূমিকা রেখেছেন এ ভাষাসৈনিক।

ভাষাসৈনিক সুনীল কুমার দাস ৫২-এর ভাষা আন্দোলনের সময় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। ভালো করে এসব কথা তিনি না বুঝলেও হাইস্কুল বা কলেজের ছাত্ররা যখন মিছিল করতেন তখন তিনি তাদের পিছনে পিছনে মিছিল করে বেড়াতেন বলে জানান।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...