অপহৃত ইউপি সদস্যের খোঁজ মেলেনি দশ দিনেও

মানবকণ্ঠ

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:৩৯

রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মংচিং মারমা অপহরণের ১০ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও খোঁজ মেলেনি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

অপহৃত মংচিং মারমার মুক্তির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে অপহৃতের পরিবার ও উপজেলার রাইখালী ইউপির উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সভায় অপহৃতের বড় ভাই আবুমং মারমা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, যারা তার ভাইকে অপহরণ করেছে অবিলম্বে তার ছোট শিশু সন্তানের দিকে তাকিয়ে তাকে মুক্তি দেয়া হোক।

ইউপি সদস্য মংনুচিং মারমা বলেন, রাইখালী এলাকা এখন সন্ত্রাসের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। একের পর এক হত্যা, অপহরণ ও ডাকাতির মত ঘটনা ঘটায় এলাকাবাসী চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তিনি অবিলম্বে ইউপি সদস্য মংচিং এর মুক্তির দাবি জানান।

রাইখালী ইউপি ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সালাউদ্দিন বলেন, রাইখালীতে অপহরণসহ একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটলেও অপহৃতদের উদ্ধারে প্রশাসনিক তৎপরতা চোখে পড়ার মতো নয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, অপহৃতের স্ত্রী সামাউ মারমা, অপহৃতের মেঝ ছেলে হ্লাচাই মারমা, পরিবারের সদস্য, রাইখালী ইউনিয়নের সাবেক ও বর্তমান ইউপি সদস্যসহ ইউনিয়নবাসী।

এই বিষয়ে চন্দ্রঘোনা থানার ওসি আশ্রাফ উদ্দিন বলেন, ইউপি সদস্যকে উদ্ধারে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, রাইখালী ইউনিয়নের কারিগরপাড়ার নিজ ঘর থেকে গত মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত প্রায় ১১টায় ইউপি সদস্য মংচিং মারমাকে মুখোশধারী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনার তিন দিন পর ২১ ফেব্রুয়ারি তার স্ত্রী চন্দ্রঘোনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...