প্রেমের বিয়ের পর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা

মানবকণ্ঠ
অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা - ছবি : প্রতিবেদক।

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:২৫,  আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৪৫

ঝিনাইদহ শহরের নতুন হাটখোলা এলাকায় পারিবারিক বিরোধের জেরে স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী পিংকি (২০) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর নিহতের স্বামী সৌরভকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে তিনি মারা যায়।

পিংকি একই এলাকার মুন্না বিহারীর মেয়ে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক জানান, শহরের আদর্শপাড়া এলাকার সাত্তার মন্ডলের ছেলে সৌরভের সাথে একই এলাকার মুন্না বিহারীর মেয়ে পিংকি’র দুই মাস আগে বিয়ে হয়। এর আগে প্রেমের সম্পর্কের জেরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে পিংকি। তখন সৌরভ তাকে বিয়ে করতে রাজি না হলে থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল। পরে বিয়ের শর্তে সে মুক্তি পায়। এরপর বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। একপর্যায়ে চলতি মাসের ১৬ তারিখে স্ত্রী পিংকির গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন স্বামী সৌরভ। গুরুতর অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে চিকিসাধীন অবস্থায় মারা যান পিংকি। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী সৌরভকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরো জানান, স্ত্রীকে আগুন ধরিয়ে দিয়ে নিজেও কিছুটা দগ্ধ হয়েছিল সৌরভ। শুনেছি নিহত পিংকি অন্তঃসত্ত্বা। তবে সঠিক তথ্য ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর জানা যাবে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে/বিপাশ




Loading...
ads






Loading...