লোহাগাড়ায় ভাষার মাসে শহীদ মিনার দখল করে গাড়ি পার্কিং!

লোহাগাড়ায় ভাষার মাসে শহীদ মিনার দখল করে গাড়ি পার্কিং!
লোহাগাড়ায় ভাষার মাসে শহীদ মিনার দখল করে গাড়ি পার্কিং! - ছবি: প্রতিনিধি

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:৪১

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার বটতলি মিনি শহরের দক্ষিণ পাশে পোস্ট অফিসের সামনের শহীদ মিনারটি দখল করে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করে দখল করে রেখেছে একটি মহল। দখলমুক্ত করার ২ মাস না যেতেই ফের দখল করে ট্রাক ও সিএনজি স্টেশন করা হয়েছে। অবহেলিত শহীদ মিনারটি আজ নীরবে কাঁদছে। ক্ষুন্ন হচ্ছে শহীদ মিনারের মান। ২০১১ সালে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের উদ্যোগে শহীদ মিনারটি প্রতিষ্ঠত হয়।

সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়, লোহাগাড়া পোস্ট অফিসের সামনের শহীদ মিনারটি ঘিরে রেখে গড়ে তোলা হয়েছে সিএনজি ও ট্রাকের স্ট্যান্ড। গাড়ির চালক ও হেলপাররা নির্মিত শহীদ মিনারের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশ্রাব করছে এবং ফেলা হচ্ছে বিভিন্ন দোকানের ময়লা-আবর্জনা।

লোহাগাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক মো: রিদওয়ানুল হক সুজন বলেন, ২০১৬ সালে লোহাগাড়া বটতলী শহরের পোস্ট অফিসের সামনে এই শহীদ মিনারটিকে যখন আবর্জনার স্তুপে পরিণত করেছিল তখন তৎকালীন ইউএনও ফিজনূর রহমান স্যারকে সাথে নিয়ে এই শহীদ মিনারটিকে পরিষ্কার করেছিলাম কিন্তু এখন এটাকে ট্রাক ও সিএনজি স্ট্যান্ড বানিয়ে ফেলেছে।

তিনি প্রশাসন এবং জনপ্রতিনিধিদের কাছে দাবি জানান এই শহীদ মিনারটির যথাযথ সম্মান দেয়া হোক নচেৎ এটিকে সরিয়ে ফেলা হোক।

লোহাগাড়া পোষ্ট মাস্টার বিপ্লব জানান, শহীদ মিনারটি অবহেলিত। ড্রাইভারদের বললেও কানে শুনে না। তারা ক্ষমতার জোরে ট্রাক ও সিএনজি স্ট্যান্ড করে রেখেছে বলেও জানান তিনি।

এখন ভাষার মাস ফেব্রুয়ারি। ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এখনো অপরিষ্কার শহীদ মিনারটি। কোন বিশেষ দিবস আসলেও ঘুম ভাঙে না সংশ্লিষ্ট ও কোন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের। মাঝে মাঝে বিশেষ কোন দিবসকে ঘিরে পরীষ্কার করলেও আবারো দখল করে নেয় ট্রাক ও সিএনজি।

জানা যায়, গেল বছরের মার্চে তৎকালীন ইউএনও আবু আসলামের বদান্যতায় শহীদ মিনার এলাকাটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ও দখলমুক্ত করে বাঁশের বাউন্ডারি দেওয়া হয়েছিল। লাগানো হয়েছিল হরেক রকমের গাছ ও ফুলের চারা। এগুলোও এখন আর নেই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: তৌসিফ আহমেদের সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তিনি জানান, বিষয়টি নজরে এসছে। কয়েকদিনের মধ্যেই শহীদ মিনারটি দখলমুক্ত করা হবে।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...