ডাকাতি করতে গিয়ে গণপিটুনিতে যুবক নিহত

মানবকণ্ঠ

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৩৫,  আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৪০

বাগেরহাটের কচুয়ায় ডাকাতি করতে গিয়ে গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে এক অজ্ঞাত যুবক। যুবকের বয়স আনুমানিক ৩৫। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে বারুইখালি গ্রামের সোমেদ হাওলাদার এর বাড়িতে ডাকাতি করতে গেলে গণপিটুনির শিকার হয় ওই যুবক।

পরে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে আহত যুবককে উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় ওই এলাকায় দুইজন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, বারইখালি গ্রামের আব্দুল কাদের হাওলাদারের ছেলে মোহিত হাওলাদার (৩২) ও মহাসিন হাওলাদার (৩৬)।

বিষয়টি জানার পর বাগেরহাট সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ওবায়দুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকির হাওলাদার বলেন, ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে ভোররাতে ৫-৬ জনের একদল লোক সোমেদ হাওলাদারের বাড়িতে ঢোকে। এ সময় ডাকাতরা সোমেদ হাওলাদারের বাড়ি থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা, ৩টি মোবাইল ও স্বর্ণালংকার লুট করে। বাড়ির লোকজনের চিৎকারে গ্রামের লোকজন বেরিয়ে আসে এবং ডাকাতরা লোকজনের সমাগম টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় গনপিটুনিতে অজ্ঞাত এক যুবক গুরুতর আহত হয়। ডাকাত দলের অন্য সদস্যরা পালিয়ে যায়। ডাকাতদের ধরতে গিয়ে স্থানীয় দুই যুবকও আহত হয়েছে।

কচুয়া থানার ওসি (তদন্ত) সর্দার ইকবাল হোসেন বলেন, গণপিটুনিতে আহত যুবককে হাসপাতালে নিয়ে আসার পরে সে মারা যায়। যুবকের পরিচয় জানতে আমরা তার ছবি দিয়ে বেতার বার্তা পাঠিয়েছি বিভিন্ন থানায়। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

মানবকণ্ঠ/জেএস






ads
ads