দেবিদ্বারে বাড়ি নিমার্ণের চাঁদা না পেয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা

দেবিদ্বারে বাড়ি নিমার্ণের চাঁদা না পেয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা
- ছবি: প্রতিনিধি

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:৪৪

কুমিল্লার দেবিদ্বারে নতুন বাড়ি নিমার্ণের চাঁদা না পেয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে যুবককে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় দেবিদ্বার উপজেলার বানিয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

দেবিদ্বার থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দেবিদ্বারের বড়শাল ঘর গ্রামের বাসিন্দা মোসা. পারভীন আক্তার বানিয়াপাড়া এলাকায় বাড়ি নিমার্ণ করছে। একই এলাকার আবু সুফিয়ানের ছেলে রুহুল আমিন শুরু থেকেই চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা না পেয়ে গত রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নির্মাণাধীন বাড়িতে প্রবেশ করে পারভীন আক্তারের ছেলে মো. আনাছ রাব্বি (১৮) কে রড দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে আহত করে। এ সময় তার উভয়হাতসহ বাম পায়ের হাড়ভাঙ্গে যায়, রক্তাক্ত হন। আহত রাব্বিকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়। অবস্থা খারাপ দেখে উপজেলা মেডিকেল অফিসার তাকে কুমিল্লা পাঠিয়ে দেয়।

স্থানীয় বাসিন্দা সোহারাব হোসেন বলেন, একই দিনে রুহুল আমিন গংরা সিরাজুল ইসলামের ছেলে হাসান আহম্মেদ ও আ. বারেকের ছেলে আ. কাদের মিয়াকে মেরে আহত করে। তারা দু’জন দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে। থানায় মামলা দেওয়া হয়েছে। সে মাদকাসক্ত লোক। তার বিরুদ্ধে এলাকায় নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। এর আগের সে একাধিক খারাপ কাজ করেছে।

আনাছ রাব্বির মা পারভীন আক্তার বলেন, জায়গা কেনার পর থেকে রুহুল আমিন চাঁদা দাবি করে আসছে। রবিবার সে আমার ছেলেকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। তার সাথে ২ হাজার ৬০০ টাকা ছিলো তা নিয়ে গেছে। নানাভাবে হুমকি-ধামকি প্রদান করছে। আমাকে ও আমার ছেলেকে হত্যার হুমকি প্রদান করে আসছে।

এ বিষয়ে জানতে রুহুল আমিনের মোবাইল নম্বরে একাধিকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা যায়নি।

দেবিদ্বার থানার এএসআই মো. আলমগীর জানান, রবিবার রাতে এ অভিযোগের বিষয়ে দায়িত্ব পেয়েছি। গতরাতে (রবিবার রাতে) রুহুল আমিনের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে, তাকে পাওয়া যায়নি। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। পুলিশ তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads