• বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • ই-পেপার
12 12 12 12
দিন ঘন্টা  মিনিট  সেকেন্ড 

রাউজানে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ২, আহত ২৫

রাউজানে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ২, আহত ২৫
রাউজানে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ২, আহত ২৫ - প্রতিনিধি

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৭:৪৭

চট্টগ্রামের রাউজানে একটি যাত্রীবাহী বাস উল্টে দুই জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়কের পাহাড়তলী ইউনিয়নের পিংক সিটি-২ এর পাশ্ববর্তী স্থানে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে গেলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বাসের যাত্রীদের অনেকে আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় লোকজন ও সাথে থাকা স্বজনরা উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেছেন।

নিহতরা হলেন- বাসের হেলপার মো: ইমাম হোসেন ও যাত্রী জাহান আরা বেগম (৫৫) ।

বাসের হেলপার ইমাম হোসেন চন্দ্রঘোনার লিচুবাগান এলাকার চৌধুরী গোট্টা এলাকার মৃত আবুল কাশেমের পুত্র। সে কদমতলী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বনগ্রাম এলাকায় স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতো। আর জাহান আরা বেগম রাঙ্গুনিয়া উপজেলার শিলক ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বদিউর রহমান তালুকদার বাড়ীর বিজিবির অবসরপ্রাপ্ত জওয়ান আব্দুল মালেকের স্ত্রী। তার বাপের বাড়ি রাঙ্গুনিয়ার ১০ নং পদুয়া ইউনিয়নের সুখ বিলাস এলাকায়।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী, নিহতদের স্বজন ও রাউজান থানা পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার পর চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল থেকে কাপ্তাইয়ের উদ্দেশে ছেড়ে আসা আল্লার দান পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (চট্টগ্রাম-জ-৬০) চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়কের পাহাড়তলী ইউনিয়নের পিংক সিটি-২ এর পাশ্ববর্তী স্থানে পৌঁছলে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পার্শ্বে খাদে পড়ে উল্টে যায়। এ সময় গাড়ীর নিচে চাপা পড়ে বাসের হেলপার মো: ইমাম হোসেন ও যাত্রী জাহান আরা বেগম ঘটনাস্থলেই মারা যান। এছাড়া এ ঘটনায় চুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আব্দুর রাজ্জাক ও পেট্রোলিয়াম এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক নাদিয়া মেহজাবিনসহ অনন্ত ২৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি জানার সাথে সাথে আমি স্থানীয়দের নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজে নেমে পড়ি। উদ্ধার কাজে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন আসলেও তাদের আধুনিক কোন যন্ত্রপাতি না থাকায় কোন ভূমিকা রাখতে পারে নি। খবর পেয়ে রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ কেফায়েত উল্লাহ, উপপরিদর্শক আমজান হোসেন ও নোয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির আরমান ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে নোয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন।

রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ কেফায়েত উল্লাহ বলেন, নিহতদের পরিবারের সদস্যদের কোনো অভিযোগ না থাকায় তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাদের পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...