নীলফামারী জেলা বিএনপি

অবশেষে ঠিক হলো সম্মেলনের দিনক্ষণ


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:৫২

দুইদফা পেছানোর পর অবশেষে চুড়ান্ত হয়েছে নীলফামারী জেলা বিএনপি দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের দিনক্ষণ। আগামী ১৬ জানুয়ারি জেলা শিল্পকলা অডিটোরিয়ামে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে সম্মেলনে নেতা নির্বাচনে গঠন করা হয়েছে নির্বাচন কমিশন। এটিকে মডেল হিসেবে বলছেন জেলার দায়িত্বে থাকা শীর্ষ নেতারা।

এর আগে গেলো বছরের ১৪ নভেম্বর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হলেও সেটি পিছিয়ে করা হয় ডিসেম্বর মাসের ২৩ তারিখে। কিন্তু ওই দিনও হয়নি জেলা সম্মেলন।

সূত্র জানায়, কমিটি গঠন নিয়ে অভিযোগ উঠায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুইয়ার নেতৃত্বে একটি টিম নীলফামারীতে সরেজমিনে তদন্ত করে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে রিপোর্ট করেন। পরবর্তীতে সমাধান হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে চলতি জানুয়ারি মাসের ১৬ তারিখ দিনক্ষণ ঠিক করা হয় সম্মেলন সম্পন্নে।

এদিকে সম্মেলন ঘিরে গঠন করা হয় নির্বাচন কমিশন। যেটি গঠন করে দেন দলের রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু গত ২ জানুয়ারি।

কমিশনে আশরাফুল লতিফ কিবরিয়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং ব্যবসায়ী মোজাম্মেল হক, কাজী ফয়েজ উল হক শিশির, হাসনাইন ইমাম সোহেল ও রবিউল আলম আহসান প্রামাণিককে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে রাখা হয়েছে।

নির্বাচন তফসিল অনুযায়ী ৭ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমাদান, একই দিন বাছাই, ৮ জানুয়ারি প্রার্থিতা প্রত্যাহার ও চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ এবং ১৬ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জহুরুল আলম বলেন, দলের ভেতর থেকে কেন্দ্রে অভিযোগ করা হয়। সেটি আমলে নিয়ে নেতাদের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত করে দেখে এর সত্যতা পাননি দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আবুল খায়ের ভুইয়া ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক। তদন্তে সব নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন তারা। এসব সমাধান হওয়ার পর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে নতুন করে সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আলমগীর সরকার বলেন, বিএনপিতে নেতা নির্বাচনে মডেল সম্মেলন শুরু হলো নীলফামারী থেকে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এটি সারাদেশে প্রয়োগ করবে কেন্দ্র।

তিনি বলেন, জেলার আওতায় সাতটি ইউনিট রয়েছে। ২০১৯ সালের ২৪ মার্চ দায়িত্ব পাওয়ার নয় মাসের মধ্যে সবকটি ইউনিটে সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা কমিটি করতে পেরেছি।

জেলা বিএনপির সূত্র জানায়, সম্মেলনের দিন মহাসচিব ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এবং উদ্বোধক হিসেবে থাকবেন সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু।

নির্বাচন কমিশনার হাসনাইন ইমাম সোহেল জানান, সভাপতি পদে আলমগীর সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জহুরুল আলম একমাত্র প্রার্থী হিসেবে ফরম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, সভাপতি পদে ১০ হাজার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাত হাজার টাকা জামানত হিসেবে দিতে হয়েছে তাদের।

মানবকণ্ঠ/আরবি






ads