মাদারীপুরে সংঘর্ষে নারীসহ আহত ২০

মাদারীপুরে সংঘর্ষে নারীসহ আহত ২০
মাদারীপুরে সংঘর্ষে আহত ২০ জনের মধ্যে চিকিৎসাধীন একজন - ছবি: প্রতিনিধি

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৫ জানুয়ারি ২০২০, ২০:৫২,  আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০২০, ২০:৫৫

পূর্ব শত্রুতার জেরে মাদারীপুরের কালকিনিতে গ্রামবাসীর ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে নারীসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার (৫ জানুয়ারি) সকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জেলা সদর উপজেলার ঝাউদি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেনের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী কালকিনি উপজেলার আলীনগর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের মীরাকান্দি গ্রামের ইউপি সদস্য আলমগীর চৌকিদারের দীর্ঘদিন ধরে পূর্বশত্রুতা চলে আসছে।

এর জের ধরেই হঠাৎ করে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেনের নেতৃত্বে কালাম, জালাল ও মামুন শরীফসহ বেশ কয়েকজন তাদের দলবলসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আলীনগর ইউনিয়নের মিরাকান্দি গ্রামে গিয়ে ইউপি সদস্য আলমগীর চৌকিদারের লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এ সময় হামলাকারীদের স্থানীয় গ্রামবাসীরা বাধা দিলে তাদের ওপর ও দফায়-দফায় হামলা চালানো হয়। এ নিয়ে
উভয় পক্ষ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পরেন।

সংঘর্ষে নারীসহ গুরুতর আহত হয় জালাল চৌকিদার (৪০), সজিব চৌকিদার (৪০). হিজহুল চৌকিদার (৩৫), সাজ্জাদ (৩৭), জুয়েল (৪৫), মান্নান চৌকিদার (৪৬), আনোয়ার (৩৯), জামেলা বেগম (৬০) ও হানিফ বেপারীসহ ২০ জন।

আহতদের প্রথমে কালকিনি হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। খবর পেয়ে কালকিনি থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ইউপি সদস্য আলমগীর চৌকিদার বলেন, বিনা কারণে আমার লোকজন ও গ্রামবাসীর ওপর হামলা চালিয়েছে আবুল চেয়ারম্যানের লোকজন। তবে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন বলেন, আমি হামলা করিনি। আমার লোকজনের ওপর হামলা চালানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা বলেন, এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

মানবকণ্ঠ/আরবি



poisha bazar

ads
ads