হাত-পা বেঁধে কিশোরীকে দফায় দফায় ধর্ষণ করল আ.লীগ নেতা!


poisha bazar

  • ০৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৪:০৫

জামালপুরের ডিসির ঘটনার পরে এবার আলোচনায় এক আওয়ামী লীগ নেতা। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, হাত-পা বেঁধে এক কিশোরীকে দফায় দফায় ধর্ষণের। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিশোরীকে গৃহকর্মীর কাজের কথা বলে বাড়ি নিয়ে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করেন ওই নেতা।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ জনতা সদর উপজেলার বাদেচান্দি এলাকায় জামালপুর-ময়মনসিংহ সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে বৃহস্পতিবার এক ঘণ্টা ধরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে।

সদর থানার ওসি মো. সালেমুজ্জামান জানান, লক্ষ্মীরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক চান মিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

চাঁন মিয়া লক্ষ্মীরচর ইউনিয়নের বাসিন্দা ছিলেন। কয়েক বছর আগে শরিফপুর ইউনিয়নের বাদেচান্দি এলাকায় বাড়ি করে সেখানে বাস করছেন।

কিশোরীর বাবা জানান, ঘরের কাজকর্ম করার জন্য চাঁন মিয়া তার মেয়েকে বুধবার নিয়ে যান। তারপর রাত থেকে সকাল পর্যন্ত হাত-পা ও মুখ বেঁধে কয়েক দফায় ধর্ষণ করেছে। পরে বৃহস্পতিবার সকালে মেয়ে সেখান থেকে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়।

১৫ বছর বয়সী এই কিশোরীর অভিযোগ, “বুধবার রাত ১১টার দিকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে চান মিয়া। সকালে আবার ধর্ষণ করে আড়াই হাজার টাকা দিয়ে বলে, ‘যা চাবি তাই দিমু। এই কতা কাউরে কইসনে।’ আমি চিৎকার করলে চড়-থাপড় দিয়ে আমার মুখ চেপে ধরে। আমি এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।”

ওসি সালেমুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশ ওই কিশোরীকে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতিসহ চাঁন মিয়াকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads






Loading...