ফরিদপুরে কিশোরী হত্যায় অভিযুক্ত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

ফরিদপুরে কিশোরী হত্যায় অভিযুক্ত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:২৮

ফরিদপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. ইয়াছিন খান (২৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি প্রতিবন্ধী কিশোরী ফাতেমা বেগম (১৪) হত্যায় প্রধান অভিযুক্ত ছিলেন বলে জানা গেছে।

রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে ফরিদপুর শহরের পূর্ব খাবাসপুর জোড়া সেতু এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিন রাতেই শহরের ওয়ারলেসপাড়া এলাকা থেকে ইয়াছিন খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা জানান, গ্রেফতার ইয়াছিন পুলিশের কাছে ফাতেমাকে অপহরণ এবং ধর্ষণ ও ধর্ষণের পর হত্যার কথা স্বীকার করেছে। ঘটনার সময় ইয়াছিন যে কাপড় পরিহিত ছিল এবং হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারের জন্য তাকে পূর্ব খাবাসপুর জোড়া ব্রিজের ওখানে নিয়ে যাওয়া হলে তিনি পুলিশের হাত থেকে অস্ত্র কেড়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ধস্তাধস্তিতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হন। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়লে ইয়াছিন গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

গত বৃহস্পতিবার বিকেল চারটার দিকে শহরের ঝিলটুলি এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় ফাতেমা। এর সাড়ে ২৬ ঘণ্টা পর শহরের দক্ষিণ কালীবাড়ি এলাকার টেলিগ্রাম অফিসের চত্বর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফরিদা রাজেন্দ্র কলেজসংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা এলাহি শরিফের মেয়ে। তিন বোনের মধ্যে সে বড়। পুলিশ ধারণা করে, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি হত্যা মামলা করেন তার বাবা।

মানবকণ্ঠ/আরবি





ads






Loading...