• মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • ই-পেপার
12 12 12 12
দিন ঘন্টা  মিনিট  সেকেন্ড 

ধর্ষণে ব্যর্থ যুবকের প্রতিবন্ধীকে কুপিয়ে হত্যা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩:৪৪,  আপডেট: ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:০৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নববধূকে ধর্ষণ করতে গিয়ে বাড়ির লোকজনের হাতে ধরা পড়ে ইমাম হোসেন (২৫) নামে এক বখাটে। পরে ঘটনাস্থলে তার লোকজনের হামলায় সফিকুল ইসলাম (২২) নামে এক প্রতিবন্ধী যুবক নিহত হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের বৈষ্টবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক আখাউড়া উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল কাদির মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, বৈষ্টবপুর গ্রামের রুবেল (২২) শৌচ কাজে রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘর থেকে বের হয়। এ সুযোগে গ্রামের বখাটে যুবক ইমাম হোসেন ঘরে প্রবেশ করে রুবেলের স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। গৃহবধূর চিৎকারে তার স্বামীসহ বাড়ির লোকজন ছুটে এসে ইমামকে আটক করে।

পরে ইমাম হোসেনের লোকজন খবর পেয়ে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রুবেলের বাড়িতে অর্তকিতে হামলা চালায়। হামলাকারীদরে মধ্যে ছিল ঐ গ্রামের কাউছার, শাহীন বেগ, জাকির, ভূইয়া শাহীন, শাহজাহান, আনোয়ার, মনির চৌধুরী, ছাইদুল ও ইমাম হোসেন। এ সময় পাশের বাড়ির বাক প্রতিবন্ধী যুবক সফিকুল ইসলাম সেখানে দেখতে গেলে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে হামলাকারীরা।

এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়ছেে। হামলায় আহতেরা হলেন - রোকেয়া (৫০), চম্পা (৩৫), মাহমুদ আলী (৭০), আহম্মদ আলী (৬৫), সিরাজ (৫৫) জাহাঙ্গীর (৩৫), আশিক (২৩), শরীফ (১৬), বাদশা (২০) ও মুছা (৩০)। হামলার শিকার সিরাজ, মাহমুদ ও আশিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়ছেে বলে জানিয়েছেন পরিবারের লোকজন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মো. সেলিম গণমাধ্যমকে বলেন, রাত থেকেই ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন আছে। পুলিশ ইতোমধ্যে জাকির, মোয়াজ্জেম, মামুন ও বাতেন নামে সন্দেহভাজন চারজনকে আটক করেছে।

 

মানবকণ্ঠ/টিএইচডি




Loading...
ads






Loading...