গোবিন্দগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে দেড় শতাধিক দোকান ভস্মিভুত

মানবকণ্ঠ

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২০ নভেম্বর ২০১৯, ২০:৩৫

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নাকাইহাট বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দুপুরের এ অগ্নিকাণ্ডে প্রায় দেড় শতাধিক দোকান ঘর ভস্মাভুত হয়েছে। এতে প্রায় ৩ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আকস্মিকভাবে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয় এবং মূহূর্তের মধ্যে তা পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। উপস্থিত জনতা তাৎক্ষণিকভাবে আশেপাশের বাড়ি ও বিভিন্ন জলাধার থেকে পানি এনে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে এবং ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। কিন্তু ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই কাপড়ের দোকান, মসলার দোকান ও কাঁচা সবজির দোকানসহ প্রায় দেড় শতাধিক দোকান আগুনে পুড়ে যায়।

আগুন লাগার কিছুক্ষণের মধ্যেই ক্ষতিগ্রস্ত নাকাইহাট বাজারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসে। তবে শত চেষ্টা করেও দোকানদার ও ব্যবসায়ীরা তাদের দোকানপাট আগুনের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেনি। অনেক ব্যবসায়ী তাদের পরিবারের লোকজনকে সর্বস্ব হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা গেছে। অনেকেই তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে অভিযোগ করেছেন ফায়ার সার্ভিসকে আগুন লাগার সাথে সাথে খবর দেয়া হলেও অনেক দেরিতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর কারণে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান বেশি হয়েছে।

খবর পেয়ে গোবিন্দগঞ্জ, গাইবান্ধা এবং সাঘাটা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট উপস্থিত হয়ে ২ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তাৎক্ষণিকভাবে এ অগ্নিকাণ্ডের সঠিক কারণ জানা না গেলেও অনেকেই ধারণা করছে বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিট থেকে এর সূত্রপাত হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ মতিয়ার রহমান জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের নিয়ে তিনি ঘটনাস্থলে রওনা দেন এবং পার্শ্ববর্তী সাঘাটা ফায়ার সার্ভিসকেও বিষয়টি জানান। তবে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জের উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম ও গোবিন্দগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মেহেদী হাসানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

মানবকণ্ঠ/আরবি





ads