• শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • ই-পেপার
12 12 12 12
দিন ঘন্টা  মিনিট  সেকেন্ড 

শিশু মাহাদী হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়নি, তদন্তে পুলিশ

মানবকণ্ঠ
ছবি - প্রতিবেদক।

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:২০

গাজীপুরের শ্রীপুরে ১৮ দিন বয়সী শিশুকে পানিতে চুবিয়ে হত্যার ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন হয়নি এখনো। পুলিশের বক্তব্য, হয় শিশুর বাবা, না-হয় শিশুটির নানা-নানি এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। পুলিশের সন্দেহ শিশুটির মাকে ঘিরেও।

ঘটনার পর তারা নিহত শিশুর বাবা বিজয় হাসান ফকিরকে পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। তবে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিজয় হাসান বারবারই বলেছেন, ‘আমি হত্যা করিনি। এটা ষড়যন্ত্র। পুলিশ তদন্ত করলেই প্রকৃত খুনিরা ধরা পড়বে। আমাকে ফাঁসানোর জন্য নিষ্পাপ শিশু ছেলেকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমি হত্যাকারীদের বিচার দাবি করছি।

এদিকে নিহত শিশুর দাদা শামসুল হক ফকিরের দাবি, পরিকল্পিতভাবে তার নাতিকে হত্যা করে নিরীহ ছেলেকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে তারা।

তিনি বলেন, গত শুক্রবার রাতে আমার ছেলে বিজয় হাসান শ্বশুরবাড়ি গিয়ে পরদিনই বাড়ি ফিরে আসে। কিন্তু বিকেলেই তার স্ত্রী নূসরাত জাহান মুন্নী ফোন দিয়ে তাকে রাতে আবার যেতে বলে। জরুরি কাজ থাকায় বিজয় যেতে পারবে না বলায় তাঁর স্ত্রী জানায়, ভাল খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। তাই তার মা-বাবা চাচ্ছেন সে যেন যায়। এ সময় শিশুটির জন্য দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস নিতে বলে তার স্ত্রী। ভাইয়ের কাছ থেকে টাকা নিয়ে শিশুর প্রয়োজনীয় জিনিস কিনে শ্বশুরবাড়ি যায় বিজয়। পরদিন নাতিকে হত্যার খবর পাই আমি।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গ্রেফতার থাকা নিহত শিশুর বাবা বিজয় হাসান ফকিরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) দুপুরে আদালতে সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছে। এদিকে সোমবার রাত পর্যন্ত নিহত শিশুর মা, নানা-নানিকে কয়েক দফা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকেলে গাজীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) শামসুন্নাহার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ওই সময় প্রতিবেশীদের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি। পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই মর্মস্পর্শী। হত্যাকাণ্ডটি খুবই গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। আমরা নিহত শিশুটির মাসহ তার নানা-নানিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। এর রহস্য উদঘাটিত হবেই।’

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. লিয়াকত আলী বলেন, ‘বাড়িটির প্রবেশদ্বারের ভেতর বারান্দায় সিসি ক্যামেরা ছিল। তা উদ্ধার করে এর ফুটেজ দেখা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, রোববার ভোরে শ্রীপুর পৌর এলাকার ভাংনাহাটি গ্রামে ১৮দিন বয়সের এক শিশু সন্তানকে বাথরুমে বালতির পানিতে চুবিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বাবার বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত ওই বাবার নাম বিজয় হাসান (২০)। তিনি শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নগর হাওলা গ্রামের শামসুল হকের ছেলে। নিহত শিশুটির নাম আব্দুল্লাহ আল মাহাদী। হত্যার ঘটনায় শিশুটির নানা মোফাজ্জল হোসেন তাঁর বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে মামলা করেন।

মানবকণ্ঠ/জেএস

 




Loading...
ads






Loading...