লাকসামে তৈলকলে অগ্নিকাণ্ড, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

মানবকণ্ঠ
ছবি - প্রতিবেদক

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৪৪

কুমিল্লার লাকসামে বুধবার মধ্যরাতে একটি তৈল কলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। শহরের পূর্ব লাকসাম মহাশশ্মান সংলগ্ন ফরিদ সুপার মার্কেটে অবস্থিত মেসার্স ফারহানা ওয়েল মিল নামে ওই তৈলকলে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মার্কেটের নৈশ প্রহরী মোঃ আবু ছায়েদ জানান, বুধবার রাত পৌনে ১২টার দিকে মার্কেটের অদূরে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফর্মারে বিকট শব্দ হয়। পরক্ষণেই ফরিদ সুপার মার্কেটের ফারহানা ওয়েল মিলে বিকট শব্দ হয়ে আগুন লেগে যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন মিলের অভ্যন্তরে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে পার্শ্ববর্তি বেকারীতে থাকা লোকজন চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করে। এ সময় পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে লাকসাম ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে তৈল কলের মেশিনপত্র, বড় বড় প্লাস্টিকের ড্রাম ভর্তি সরিষার তৈল, কাঁচা সরিষা, তেল ভর্তি কন্টেইনার, বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ও আসবাবপত্রসহ অন্যান্য মালামাল পুড়ে যায়।

অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যাওয়া মেসার্স ফারহানা ওয়েল মিলের মালিক সৈয়দ ফরিদ সিদ্দিকী বলেন, অগ্নিকাণ্ডে মিলের আসবাবপত্রসহ বেশিরভাগ অংশ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এক কোটি টাকার অধিক হবে বলে তিনি দাবি করেন। এ বিষয়ে তিনি লাকসাম থানায় জিডি করা হয়েছে। তিনি জানান, ইসলামী ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক থেকে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছিলেন। মিলে প্রায় ১৪ জন শ্রমিক-কর্মচারী কাজ করে। অগ্নিকাণ্ডের ফলে প্রায় নিঃস্ব হয়ে পড়েন।

এ বিষয়ে লাকসাম ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোঃ সফিকুল ইসলাম জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে দ্রুত আগুন নেভানো হয়েছে। বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads




Loading...