চুক্তি না পড়ে হতাশা জানানো কুঅভ্যাস: তথ্যমন্ত্রী

চুক্তি না পড়ে হতাশা জানানো কুঅভ্যাস: তথ্যমন্ত্রী
তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:০৮

চুক্তি না পড়ে, না বুঝেই যারা হতাশা প্রকাশ করেন, সেটা তাদের পুরনো কুঅভ্যাসেরই ফল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

সোমবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের প্রচার উপ-কমিটির সভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, চুক্তি না পড়ে, না বুঝেই যারা হতাশা প্রকাশ করেন, সেটা তাদের পুরনো কুঅভ্যাসেরই ফল। সবকিছুতেই হতাশা ব্যক্ত করা, না পড়েই প্রতিক্রিয় দেওয়া তাদের অভ্যাস, এমনকি নিজের ব্যাপারেও তারা আশাবাদী নন বলেই মনে হয়।

সে কারণেই তারা বোঝেননি যে, এলপিজি মানে প্রাকৃতিক গ্যাস নয়, বরং ‘ক্রুড অয়েল’ বা অশোধিত পেট্রোলিয়াম পরিশোধন করার সময় প্রাপ্ত উপজাত, যা রপ্তানির সুযোগ দেশের জন্য অর্থনৈতিকভাবে অনেক লাভজনক।

ফেনী নদীর পানি ভারতের ব্যবহার প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ত্রিপুরা থেকে আগত ফেনী নদীর পানি ভারত আগে থেকেই ব্যবহার করে আসছিল, এবারের চুক্তিতে তাকে একটি কাঠামো-সীমার মধ্যে আনা হয়েছে আর এক দশমিক ৮২ কিউসেক হচ্ছে মাত্র ৫১ লিটার পানি।

প্রধানমন্ত্রীর এ সফর অত্যন্ত ফলপ্রসূ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহারে ‘স্ট্যান্ডার্ড অপরেটিং প্রসিডিউর-এসওপি’ বা কার্যপ্রণালী স্বাক্ষর একটি অসামান্য অগ্রগতি। ভারতের চট্টগ্রাম ও মংলা, বিশেষ করে চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারের ফলে আমাদের প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ও বন্দর ব্যবহারজনিত নানামুখী আয় বৃদ্ধি পাবে।

বুয়েটে ছাত্র নিহতের ঘটনাটির দুঃখজনক হিসেবে আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘ঘটনাটি তদন্তাধীন। তদন্তে যে বা যারাই দোষী প্রমাণিত হবে, তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাউকে আটক করার অর্থ তাকে দোষী সাব্যস্ত করা নয়, তদন্তের পরই দোষী কে বা কারা বোঝা যাবে।’

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও আওয়ামী লীগের প্রচার উপ-কমিটির সভাপতি এইচ টি ইমামের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনসহ উপকমিটির সদস্যরা।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads





Loading...