আন্তর্জাতিক যুব শান্তি সম্মেলনে পুরস্কৃত হলেন ময়ূরপঙ্খীর সুমন

পুরস্কৃত হলেন ময়ূরপঙ্খীর সুমন - ছবি: সংগৃহীত।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:২৬

মালদ্বীপে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক যুব শান্তি প্রতিনিধি সম্মেলনে 'বিশ্ব শান্তি পুরস্কার' (গ্লোবাল পিস অ্যাওয়ার্ড) গ্রহণ করলেন মোঃ সুমন রহমান (রুহিত সুমন)। সমাজের অবহেলিত, দুঃস্থ মানুষের কল্যাণ এবং সুবিধাবঞ্ছিত শিশু ও নারীদের শিক্ষাসহ মৌলিক অধিকার নিয়ে বাংলাদেশে নিরলস কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ 'ময়ূরপঙ্খী শিশু-কিশোর সমাজকল্যাণ সংস্থা'র চেয়ারম্যান সুমন এ সম্মানে ভূষিত হন।

মালদ্বীপের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে রাজধানী মালেতে অনুষ্ঠিত এ সম্মেলন ২৮ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলে। এতে বিশ্বের ২৫টি দেশের যুব প্রতিনিধিরা যোগ দেন।

সুমন বলেন, পুরস্কার বা সম্মাননার জন্য কাজ করিনি। আমি মানুষকে ভালোবেসে, মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। আন্তর্জাতিক যুব শান্তি প্রতিনিধি সম্মেলনে অংশগ্রহণ এবং প্রাপ্য এ সম্মান একটি অনন্য অভিজ্ঞতা। এতে মানুষের পাশে থাকার ক্ষুধা আরও চাঙ্গা হলো।

প্রসঙ্গত, প্রায় শতাধিক সুবিধাবঞ্ছিত শিশু ও নারীদের বিনাবেতনে পড়াচ্ছেন সুমন। প্রতিষ্ঠা করেছেন ময়ূরপঙ্খী আদর্শলিপি স্কুল, ময়ূরপঙ্খী নারী শিক্ষাকেন্দ্র, ময়ূরপঙ্খী সৃজনশীল লাইব্রেরীসহ বহু সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত 'ময়ূরপঙ্খী শিশু-কিশোর সমাজকল্যাণ সংস্থা'র মাধ্যমে সমাজের অবহেলিত, দুঃস্থ মানুষের কল্যাণ এবং সুবিধাবঞ্ছিত শিশু ও নারীদের শিক্ষাসহ মৌলিক অধিকার নিয়ে তিনি নিরলস কাজ করে চলেছেন। এসব কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ একাধিক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশের নাম বহির্বিশ্বে উজ্জ্বল করা তারুণ্যের শক্তিতে ভাস্বর এই তরুণ এর আগে ভারত, মালয়েশিয়া, ভুটান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও মালদ্বীপে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন।

তিনি গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে 'ফিল্ম, টেলিভিশন এন্ড ডিজিটাল মিডিয়া'য় স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের পর ইভেন্ট অর্গানাইজার ও উপস্থাপক হিসেবে ক্যারিয়ার গড়ে তোলেন। মুন্সীগঞ্জের সন্তান সুমন রহমান একজন সফল যুব উদ্যোক্তা। বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি সেভ দ্যা চিলড্রেন, ইউনিসেফসহ আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। ছোটদের জন্য তার বিভিন্ন লেখা প্রকাশিত হয়েছে জাতীয় দৈনিক, মাসিক পত্রিকা ও ম্যাগাজিনে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে





ads







Loading...