কর্মক্ষেত্রে দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলা

মানবকণ্ঠ
কর্মক্ষেত্রে দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলবেন যেভাবে - ছবি: সংগৃহীত।

poisha bazar

  • মানবকণ্ঠ ডেস্ক
  • ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:১৮

একটি দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলার জন্য কর্মীদের যে কোনো বিষয়ে নতুন কৌশল এবং বিভিন্ন সংস্কৃতির মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করার বিস্তৃত ধারণা থাকার বিকল্প নেই। আর কোনো বিষয়ে বিস্তৃত ধারণা সৃষ্টির জন্য প্রয়োজন সেই বিষয়ে কার্যকরীভাবে গবেষণা করা। যদিও আমাদের দেশে এখনো পর্যন্ত কর্মীদের এই সুবিধাটা খুবই কমই দেয়া হয়। কিন্তু এটি দলকে শক্তিশালী করার এক অনন্য বৈশিষ্ট্য। উদাহরণস্বরূপ কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান তাদের তরুণ কর্মীদের বিদেশ ভ্রমণে উৎসাহিত করে।

এর অন্যতম কারণ হলো তারা সেখানে বিভিন্ন সংস্কৃতি, জাতি এবং ধর্মের লোকদের সঙ্গে সম্পর্কের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের বিশ্বাস এবং মানসিকতা সম্পর্কে জানতে পারে। যা তাদেরকে বিভিন্ন প্রতিক‚ল পরিস্থিতিতে টিকে থাকতে এবং বিভিন্ন ধরনের মানুষের সাইকোলজি বুঝতে সহায়তা করে। মোটকথা আপনি যখন কর্মক্ষেত্রে নতুন ধারণা, বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি এবং যোগাযোগের ধারণা নিয়ে আসবেন। তখন আপনি কেবল একটি বিচিত্র দল তৈরি করবেন না, বরং একটি প্রকৌশলী দল গঠন করবেন, যা যে কোনো সমস্যাকে খুব সহজেই মোকাবেলা করতে পারে। তাই দলকে আরো শক্তিশালী করতে কিছু বৈচিত্র্য উপায় অনুসরণ করুন।

সবার পরামর্শকে গুরুত্ব দেয়া
এমন অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যেগুলো কর্মক্ষেত্রে বৈচিত্র্য আনার মাধ্যমে কাজে ক্রমাগত ভালো ফলাফল পাচ্ছে। কেননা এর মাধ্যমে কর্মীদের প্রতিটি পরামর্শকে মূল্যায়ন করা হয় এবং তাদের পরামর্শ নিয়েই ব্যবসায়িক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। যার ফলে কর্মীরা কাজে পরিপূর্ণ আস্থা ও সম্পূর্ণ আগ্রহ নিয়ে কাজ করে। এই বিষয়ে টেক্সাস এবং সিঙ্গাপুরে একটি গবেষণা চালানো হয়েছিল, যাতে কিছু শিক্ষিত লোকদের জাতগতভাবে বৈচিত্র্যযুক্ত বা সমজাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয় এবং তাদেরকে মূল্যের মজুদ করতে বলা হয়। গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, যারা বৈচিত্র্যযুক্ত অর্থাৎ বিভিন্ন দলের অংশ ছিলেন তাদের স্টকগুলোতে দামের সম্ভাবনা ৫৮% বেশি ছিল। অপরদিকে সমজাতীয় গ্রæপে থাকা ব্যক্তিদের স্টকে ত্রæটিপূর্ণ ঝুঁকির পরিমাণ বেশি ছিল। এই গবেষণাকে আরো বিস্তৃতভাবে বিশ্লেষণ করে জানা যায়, বৈচিত্র্যযুক্ত দলের সদস্যরা একে অপরের অনুমানগুলোকে যথাযথভাবে পরীক্ষা করে দেখে এবং পুরো প্রক্রিয়াটিকে আরও যত্ন সহকারে পরিচালনা করে।

মুনাফা অর্জন করুন
একটি কোম্পানি যত বেশি ভোক্তাদের কাছে তাদের পণ্য পৌঁছাতে পারে, তাদের লাভের হার ততো বেশি বৃদ্ধি পায়। বিসিজির তথ্যমতে একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা অনুসারে, ‘দলের নেতৃত্বে বৈচিত্র্যতা বাড়িয়ে দলকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে লাভের হার ১৯% পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব’। কারণ বৈচিত্র্যময় নেতৃত্ব অনেকাংশেই কর্মীদের কাজের গতি বাড়াতে সক্ষম। তাছাড়া একটি প্রতিষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্যই হলো মুনাফা অর্জন। কর্মীদের ভিন্ন ভিন্ন মতামতকে গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করে যখন কোম্পানি কোনো সিদ্ধান্ত নেয় এবং কর্মীদের সম্পূর্ণ অংশগ্রহণে তা বাস্তবায়ন করে, তখন প্রতিষ্ঠানের লাভের হার ক্রমাগত বৃদ্ধি পায়। তাই দলের উন্নয়নের মাধ্যমে যদি প্রতিষ্ঠান লাভবান হয় তাহলে সেটাই করা উচিত।

একটি শক্তিশালী ব্র্যান্ড তৈরি করুন
কোম্পানির ওয়েবসাইটে যখন বৈচিত্র্যের বিষয়টি উল্লেখ করা থাকে তখন সহজেই সেই কোম্পানি সম্পর্কে মানুষের ইতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হয়। এটি সামগ্রিকভাবে শক্তিশালী দল এবং উন্নত সংস্থা তৈরির জন্য মানবসম্পদের এক বাস্তব হাতিয়ার। সাধারণত বৈচিত্র্যপূর্ণ একটি সংস্থা খুব সহজেই উন্নতি করতে পারে। কেননা এই প্রতিষ্ঠানগুলো ভোক্তাদের প্রয়োজন শনাক্ত করে এবং তা সমাধানের জন্য সম্পূর্ণ প্রচেষ্টা চালায়। যদি এই দলগুলো আরও ভালো পণ্য বা সমাধান তৈরি করে এবং তারা সারা বিশ্বের মানুষের জন্য পণ্য উৎপাদন করতে পারে, তবে এর সুদূরপ্রসারী প্রভাব রয়েছে। ভোক্তারা তখন সেই কোম্পানির ব্র্যান্ডকে পূর্ণ সমর্থন করে।

স্মৃতিশক্তি উন্নয়ন
উন্নত স্মৃতিশক্তি দলের উন্নয়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। যখন আপনার সংগঠন বৈচিত্র্যতাকে প্রাধান্য দেবে, তখন আপনি শুধু একটি নির্দিষ্ট কাজ নিয়েই বসে থাকবেন না। বরং এমন কিছু করবেন যা আপনার প্রতিষ্ঠান এবং দলকে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাবে। মূলত এতেই প্রতিষ্ঠানের সার্থকতা। যেমন কোনো প্রতিষ্ঠান জনপ্রিয় হওয়ার অন্যতম একটি উৎস হচ্ছে রুচিশীল পণ্যের মাধ্যমে ক্রেতার আকর্ষণ লাভ করা। এই আকর্ষণ অর্জন করার জন্য প্রয়োজন নতুন কিছু তৈরি করা। অর্থাৎ যেই প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যের গুণগত মান অথবা প্রয়োজনীয় যে কোনো উপাদানে নতুনত্ব আনতে পারে তারাই সহজে উন্নতি করতে সক্ষম। তাই নেতাদের উচিত কর্মীদের নতুন কিছু তৈরিতে উৎসাহিত করা। কর্মীরা যদি জানে যে কোনো সংস্থা বৈচিত্র্যতাকে মূল্যায়ন করে এবং তাদের জন্য যথেষ্ট সুযোগ-সুবিধা রয়েছে, তাহলে তারা তাদের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করতে পারে।

একতা গড়ে তুলুন
কোনো দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজন কর্মীদের একাত্মতা। যে কোনো কাজে যখন সবার সমন্বিত প্রচেষ্টা থাকে, তখন কাজটা সহজ হয়ে যায় এবং ভালো ফলাফলও পাওয়া যায়। তাই একটি দলকে কাজে অগ্রগতি করতে হলে আগে নিজেদের মধ্যে একতা থাকা জরুরি। একজনের সমস্যা অন্যজন বোঝা, কাউকে সাহায্য করা, যে কোনো ঝামেলা সহজে মিটিয়ে নেয়া এবং কারো সফলতায় বাহবা দেয়া এরকম বিষয়গুলোই কর্মীদের মাঝে একতা সৃষ্টি করে। আবার বর্তমান কাজের বাজারে দলের সদস্যদের ধরে রাখার জন্য এটি আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যেই দলগুলো বেশি বৈচিত্র্যময় হয়, সেই দলের কর্মচারীদের মাঝে বেশি দিন একতা থাকার সম্ভাবনা থাকে। সুতরাং শুধুমাত্র দলকে বৈচিত্র্যবদ্ধ করাই কোম্পানির ভবিষ্যৎ প্রমাণের সর্বোত্তম উপায় নয়। বরং এমন একটি দল তৈরি করা প্রয়োজন যা উদ্ভাবনী, উচ্চ-পারফর্মিং এবং ঐক্যবদ্ধ।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads





Loading...