মাত্র এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে ঢাকায় কোমর পানি

- ছবি: সংগৃহীত

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২১ জুন ২০২১, ১৬:৩৬,  আপডেট: ২১ জুন ২০২১, ১৬:৪৬

পুরান ঢাকার মাজিদ সরদার রোডসহ বেশকিছু রাস্তা মাত্র এক ঘণ্টার বৃষ্টিতেই কোমর পানি হয়ে গেছে। এর ফলে অনেক দোকান এবং বাড়ির নিচতলা পানিতে ডুবে গেছে।

সোমবার (২১ জুন) দুপুর ২ টার আগে হঠাৎ আকাশ কালো হয়ে গেল এবং বৃষ্টি শুরু হল।

সরেজমিনে দেখা যায়, বংশালের বাংলাদেশ মাঠের চারপাশের সড়কে প্রায় হাঁটু পানি জমে রয়েছে। এই পানি ভেঙে চলাচল করছেন পথচারীরা। এর মধ্যে সিক্কাটুলী রাস্তা, নাজিরা বাজার চৌরাস্তা এলাকায় জলাবদ্ধতার পরিমাণ বেশি। তবে এই এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে সাত রওজা চৌরাস্তায় নতুন পাইপলাইন বসাতে দেখা গেছে। বর্ষায় এই খোঁড়াখুঁড়ির কারণে নাগরিকদের চলাচলেও ভোগান্তি পোহাতে দেখা গেছে।

মাজেদ সরদার রোডের এক বাসিন্দা বলেন, এখন বর্ষা মৌসুমে দুই-একদিন পরপরই বৃষ্টি হচ্ছে। এমন অবস্থায় এক মাসের বেশি সময় ধরে এই এলাকায় জলাবদ্ধতা লেগে আছে। নোংরা পানির কারণে প্রয়োজনেও বাসা থেকে বের হওয়া সম্ভব হয় না। অথচ সিটি করপোরেশনের তেমন কোনো ভূমিকা দেখা যাচ্ছে না।

স্থানীয়দের অভিযোগ, জলাবদ্ধতার কারণ হল নগর কর্তৃপক্ষের অবহেলা। একবার এক ঘন্টার জন্য বৃষ্টি হলে, জল হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত সমস্ত উপায়ে জমাট বাঁধে। রাস্তায় যান চলাচলও বন্ধ ছিল। এই জল পরিবহনে এক থেকে দুই দিন সময় লাগে। তবে নগর প্রতিষ্ঠানের জলাবদ্ধতার সমস্যা সমাধানের জন্য কোনও তৎপরতা নেই।

তবে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) দাবি করেছে যে পুরান ঢাকার পানির ঘাটতি দূর করতে একটি বিশাল প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় বংশালের বিভিন্ন সড়কে জলাবদ্ধতা হ্রাস করার কাজ চলছে। এই কাজটি বর্ষায় শেষ হবে। এখন থেকে এই অঞ্চলগুলিতে জলাবদ্ধতা থাকবে না।

জানতে চাইলে ডিএসসিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পুর) মুন্সী মো. আবুল-হাশেম জানান, বংশাল জলের বাঁধা কমিয়ে আনতে ৩০ মে থেকে নতুন পাইপলাইন স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে। আমি আশা করি বর্ষার মাঝামাঝি সময়ে কাজ শেষ করতে পারব।

মানবকণ্ঠ/এসকে


poisha bazar

ads
ads