৪ লাখ জাল টাকা তৈরি হতো দিনে, চক্রের মূল হোতা আটক


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১১ জুলাই ২০১৯, ১২:৫৫

ঈদুল আজহায় দুই কোটি জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়ার মিশন নিয়ে কারখানা স্থাপন করে একটি চক্র। চক্রের প্রধান নাজমুল হোসেন নিজাম ও তাজুল ইসলাম লিটন।

মঙ্গলবার জাল টাকা চক্রের দুই হোতাসহ ১০ জনকে গ্রেফতারের পর এসব তথ্য জেনেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

লিটন নীলক্ষেতের একটি কম্পিউটার দোকানের কর্মচারী থেকে এখন জাল টাকা তৈরির বিশেষজ্ঞ ‘মাস্টার’। অপরদিকে নিজাম ড্রেজিং (মাটি খনন) ব্যবসায়ী থেকে দুই বছরের ব্যবধানে জাল টাকা তৈরির হোতায় পরিণত হয়েছে।

সাত দিন আগে কারখানাটি সাভারের ধামরাই থেকে ঢাকার রামপুরার উলন রোডের একটি বাড়িতে স্থানান্তর করে তারা।

এ কারখানায় ১০০০ ও ৫০০ টাকার জাল নোট তৈরি শুরু করেছিল। প্রতিদিন এ কারখানায় ৩ থেকে ৪ লাখ জাল টাকা তৈরি হচ্ছিল। সেই টাকা বিপণনও শুরু করে চক্রের সদস্যরা।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার টিমের সহকারী কমিশনার (এসি) সুমন কান্তি চৌধুরী জানান, চক্রের সদস্যরা ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে জাল টাকা ছড়িয়ে দিতে বিশেষ মিশন নিয়ে মাঠে নেমেছিল। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে হাতিরঝিল থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩৭ লাখ জাল টাকাসহ ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছ থেকে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। এসব তথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ডিবির ভাষ্য, এ চক্রের কারখানা ছিল সাভারের ধামরাই এলাকায়। দু’বছর ধরে তারা জাল টাকা তৈরি করে সারা দেশে বিপণন করছিল। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন এসে তাদের কাছ থেকে জাল টাকা সংগ্রহ করত। সারা দেশে তাদের নেটওয়ার্ক বাড়ার কারণে জাল টাকার চাহিদাও বাড়ছিল।

কোরবানির গরু কেনাবেচায় জাল টাকা ছড়িয়ে দিতে সারা দেশ থেকে তাদের কাছে ব্যাপক চাহিদা আসে। এ চক্রটি ঈদের আগে সারা দেশে দুই কোটি জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করে। এ চক্র বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমেও জাল টাকা ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে জানিয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে উলন রোডের ওই কারখানায় অভিযান চালিয়ে চক্রের দুই প্রধান নিজাম-লিটন ও ফাতেমাসহ ছয়জনকে ২৫ লাখ জাল টাকা এবং জাল টাকা তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার অন্য তিনজন হল : জয়নাল আবেদীন, শরীফ এবং তার স্ত্রী শারমিন আক্তার। পরে নিজামের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে হাতিরঝিল এলাকা থেকে চক্রের আরও চার সদস্যকে ১২ লাখ জাল টাকাসহ গ্রেফতার করা হয়। তারা হল : জামির শিকদার, মেহেদী হাসান পলাশ, জাহাঙ্গীর আলম ও রমিছুর রহমান সজল।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads




Loading...