হাবিপ্রবিতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:২২

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার শুভ জন্মদিনের শুভক্ষণে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) প্রশাসন।

এ উপলক্ষ্যে দিনের শুরুতেই সকাল ৯টায় টিএসসি’র সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ে সদ্য যাত্রা শুরু করা বিএনসিসি প্লাটুন এর সদস্যদের মাঝে ইউনিফর্ম বিতরণ করা হয়।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদের শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবন যাপনের মাধ্যমে সুশিক্ষা গ্রহণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখার জন্য আহ্বার জানান।

পরবর্তীতে সকাল ৯.৩০ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-২ এর বোর্ড অব ট্রাষ্টি হতে অস্বচ্ছল ও মেধাবী ২০০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে এনরোলমেন্ট সহায়তার লক্ষ্যে চেক বিতরণ করেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির উপাচার্য। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. বিধান চন্দ্র হালদার।

স্বাগত বক্তব্য ও তথ্য উপস্থাপন করেন হাবিপ্রবির ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. ইমরান পারভেজ। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ড. এসএম. হারুন-উর-রশীদ ও প্রফেসর ড. মামুনুর রশীদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, "শিক্ষার্থীদের প্রধান দায়িত্ব শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে নিজেকে দক্ষ মানবসম্পদ হিসাবে গড়ে তোলা। আজ জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভ জন্মদিন। তাই আজকের দিনটি আমাদের জন্য বিশেষ একটি দিন"।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শুভ জন্মদিনে শিক্ষার্থীদের “শিক্ষা নিয়ে গড়ব দেশ, প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ” স্লোগানকে উল্লেখ করে দেশ গড়ার সৈনিক হয়ে উঠার আহবান জানান উপাচার্য।

তিনি তাঁর বক্তব্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা উল্লেখ করে তাঁর উন্নয়ন কার্যক্রম ও দেশের জন্য তাঁর ত্যাগের কথা তুলে ধরেন। তাঁর এই পরিশ্রমের মূল লক্ষ্যই হল দেশের মানুষ যেন সুখে শান্তিতে থাকতে পারে।

তিনি আরও বলেন, "বাঙালি জাতির জন্য আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৪৬৮২ দিন কারাবন্দি ছিলেন। দেশের জন্য তাঁর এই আত্মত্যাগ আমাদেরকে আজীবন শ্রদ্ধায় স্মরণ করতে হবে। জাতির পিতার স্বপ্নকে ধারণ করেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এগিয়ে যাচ্ছেন, উনার শক্তির উৎসই হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর দৃঢ়চেতা মনোভাব। এরই প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর বুকে একটি সম্মানজনক রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমরা আমাদের নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে অসম্ভবকে সম্ভব করেছি। আমাদের সকলকে জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে দেশকে এগিয়ে যেতে হবে"। পরিশেষে তিনি এ ধরণের অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম শুভ জন্মদিনে বাদ জোহর কেন্দ্রীয় মসজিদে তাঁর দীর্ঘায়ু কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এরপর দুপুর ২টায় হাবিপ্রবি মজার ইস্কুলের সুবিধাবঞ্চিত কোমলমতি শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন উপাচার্য।

উল্লেখ্য যে, প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে হাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের কর্মীদের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাধারণ শিক্ষার্থীদের একাংশ প্রধানমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar