গণরুম শব্দটা জাবিতে শোনতে চাই না: জাবি উপাচার্য


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:৫৫

"নতুন দুটি হল আগামী নভেম্বর মাসে চালু করা হবে। শিগগিরই বাকী ছয়টি হল চালু করা হবে। সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে জাবির পূর্ন আবাসিক পরিবেশ নিশ্চিত করা হবে। গণরুম শব্দটা জাবিতে আর শোনতে চাই না।"

স্বাধীন বাংলাদেশের ক্যাম্পাস ভিত্তিক প্রথম সাংবাদিকদের সংগঠন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (জাবিসাস) নতুন উপদেষ্টার দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাবি উপাচার্য অধ্যাপক নূরুল আলম একথা বলেন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় জাবিসাস কার্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে আগামী একবছরের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে জাবিসাস এর সাবেক উপদেষ্টা অধ্যাপক শেখ তৌহিদুল ইসলাম, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ফরিদ আহমেদকে উপদেষ্টার দায়িত্ব হস্তান্তর করেন।

উপাচার্য বলেন, আচার্যের অনুমতি পেলে আগামী ফেব্রুয়ারী মাসেই কনভোকেশন অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে আচার্য বরাবর আগামী সপ্তাহে চিঠি প্রেরণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে পরিকল্পনা ব্যাক্ত করে তিনি বলেন, সেশন জট মুক্ত ক্যাম্পাস উপহার দেয়ার কথাকে মাথায় রেখে শিগগিরই একাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রস্তুত করা হবে এবং সে অনুযায়ী একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

জাবিসাসের প্রধান পৃষ্ঠপোষক জাবি উপাচার্য সাংবাদিকদের দিকনির্দেশনা প্রদান করে বলেন, সাংবাদিকতা হল গঠনমূলক সমালোচনা করার উত্তম পন্থা। আমি আশা করি জাবিসাসের সাংবাদিকরা গঠনমূলক সমালোচনার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক কার্যক্রমে মেধ-মনন দিয়ে সহযোগিতা করবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে জাবিসাসের সভাপতি মো. বেলাল হোসাইনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলকামা আজাদের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক শেখ মঞ্জুরুল আলম, বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান ও জাবিসাস এর সদস্যবৃন্দ।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar