ঢাবিতে ছাত্রলীগ নেতাকে পেটালেন আরেক ছাত্রলীগ নেতা


  • হুসাইন মোতাহার, ঢাবি
  • ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:০৫,  আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:১৬

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির উপ কর্মসূচি ও পরিকল্পনা সম্পাদক এম নজরুল ইসলামকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় গভীর রাতে ব্যাপক মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি চত্বরের সামনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মো. মহিন উদ্দিন ও তার সাথে থাকা মহানগর ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মীরা মারধর করেন বলে অভিযোগ নজরুলের। তারা দুজনেই কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী বলে জানা গেছে।

এম নজরুল ইসলাম বলেন, আমি রাতে নীলক্ষেত ত্বোরণের পাশে পেট্রল পাম্পের সামনে জয় ভাইকে (আল নাহিয়ান খান জয়) সালাম দিয়ে টিএসসির দিকে যাচ্ছিলাম। ভিসি চত্বর দিয়ে যাওয়ার সময় সহ-সভাপতি মাহিন উদ্দিন আমাকে ডাক দেয়।

মাহিন (সহ-সভাপতি মাহিন উদ্দিন) ভাইসহ তার সঙ্গীরা ভিসি চত্বরে আগে থেকেই বসে ছিল। ডাকার পর আমি সেখানে গেলে হঠাৎ করেই তার সঙ্গী ও জুনিয়ররা এসে আামার ওপর চড়াও হয়। তারা আমার ফোন ভেঙে ফেলে, হাতে একটা আংটি ছিল সেটা ছিনিয়ে নেয়। আমাকে মেরে মুহূর্তের মধ্যে তার সঙ্গীরা বাইকে করে পালিয়ে যায়। আমাকে তার এলাকার রাকিব ভাই ( ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি) সম্পর্কে জেরা করতে থাকে। আমি খুব খারাপ মানুষ এটা ওটা।

এদিকে অভিযুক্ত মাহিন উদ্দিন মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, মারধরের ঘটনা ঘটেনি। আমাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়েছে। পরে নিজেরা মিমাংসা করে নিয়েছি।

তবে ভুক্তভোগী নজরুল বলেন মিমাংসা হয়নি। আমকে সরি বলার কি আছে? আমিও সেন্ট্রাল লিডার, তার জুনিয়র সঙ্গীরা এমন আচরণ কেনো করবে আমার সাথে?

ভুক্তভোগী আরও বলেন, আমি জয় ভাইকে বিষয়টি জানিয়েছি। জয় ভাই আমাদের সাথে কথা বলেছে। কালকে সকাল বেলা আমরা বসবো ব্যাপারটা নিয়ে।

এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, আমরা বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি। অভিযোগ সত্য হলে তদন্ত সাপেক্ষে সাংগাঠনিক ব্যবস্থা নিবো।

মানবকণ্ঠ/এমএ


poisha bazar

ads
ads