পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নেয়া হবে অনলাইনে


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৬ মে ২০২১, ২২:৪৫

শিক্ষার্থীদের সুবিধা ও সেশন জট কমানোর কথা বিবেচনা করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে পরীক্ষা নিতে বলেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন-ইউজিসি। বৃহস্পতিবার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে ইউজিসির ভার্চুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক দিল আফরোজা বেগম এ তথ্য নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনলাইনে পরীক্ষা নেবে। তবে কীভাবে নেবে, সেটা নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় আলোচনা করে ঠিক করবে। এ বিষয়ে তারা একটি গাইড লাইন তৈরি করেছেন। সেটা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এরপর মন্ত্রণালয় সেটা পরিপত্র আকারে জারি করলে তা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে পাঠানো হবে।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এই সময়ে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস হলেও পরীক্ষা হচ্ছে না। সংক্রমণের নিম্নগতির মধ্যে গত ২২ মার্চ শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি আগামী ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেয়ার কথা জানিয়েছিলেন।

২৪ মে পর্যন্ত অনলাইনে ক্লাস চললেও কোনো ধরনের পরীক্ষা নেয়া যাবে না বলে জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে ঘোষিত সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। ফলে গত এক বছর ধরে দুই সেমিস্টারের পরীক্ষা আটকে থাকায় ৪৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক লাখ শিক্ষার্থী দীর্ঘ সেশনজটের শঙ্কায় রয়েছেন।

মহামারী পরিস্থিতি আরও দীর্ঘ হতে পারে, সে আশঙ্কা থেকেই শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত এসেছে বলে জানিয়েছেন ইউজিসির সদস্য সাজ্জাদ হোসাইন।

তিনি বলেন, “মহামারী কতদিন থাকবে, তার কোনো নিশ্চয়তা নাই। আমরা চিন্তা করছি, এই অবস্থাটা দুই-তিন বছর চলতে পারে। তখন তো শিক্ষার্থীদের চাকরির ব্যাপার আছে। তারা মানসিকভাবেও ভেঙে পড়বে। সেজন্য আমাদের এখন পরীক্ষা নিতে হবে। শিক্ষার্থীদের একই সেমিস্টারে বসিয়ে রাখা যাবে না। তারাও মানসিক চাপে আছে। তাদের পরীক্ষা নিয়ে পরের সেমিস্টারে দিতে হবে।



poisha bazar

ads
ads