ইবিতে নবাগতদের গল্প শোনাবেন অধ্যাপক অরুণ কুমার বসাক

ইবিতে নবাগতদের গল্প শোনাবেন অধ্যাপক অরুণ কুমার বসাক

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২১:০৮

অনি আতিকুর রহমান, ইবি: আগামীকাল সোমবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) অনুষ্ঠিত হচ্ছে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রীয় ওরিয়েন্টশন (উদ্বোধনী ক্লাস)। ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করবেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে নবাগত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখবেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের এমেরিটাস অধ্যাপক ও বিখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী ড. অরুণ কুমার বসাক।

জানা গেছে, ৩৪টি বিভাগে ভর্তিকৃত ২৩০৫জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে এদিন সকাল ১০টায় ক্যাম্পাসস্থ বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে এটি অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ইবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি থাকবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা।

অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন সেবা সম্বন্ধে একটি ‘পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন’ উপস্থাপন করা হবে। এর আগে গত ২৬ জানুয়ারি প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে ইবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী বলেন, ওরিয়েন্টশনে ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দীপনা ও অনুপ্রেরণামূলক গল্প শোনানোর জন্য আমরা অধ্যাপক অরুণ কুমার বসাকের মত একজন কৃতিবিদ্য শিক্ষাবিদ ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিজ্ঞানীকে আমন্ত্রণ করেছি। আশা করি, তার বক্তৃতার মধ্য দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষাজীবনের দিকনির্দেশনা খুঁজে পাবে।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক অরুণ কুমার বসাক বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী। তিনি পদার্থবিজ্ঞানে দেশের একমাত্র এমেরিটাস অধ্যাপক (রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়)। তিনি ১৯৪১ সালে পাবনা শহরের রাধানগরে জন্মগ্রহণ করেন। ‘নিউক্লিয়ার’ বিষয়ক তত্ত্ব দিয়ে অধ্যাপক বসাক বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করেছেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনে তিনি সমাবর্তন বক্তা ছিলেন।

দীর্ঘ অধ্যাপনা জীবনে ড. বসাক দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে তার শতাধিক বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। একাধিক জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞান ও শিক্ষা বিষয়ক গবেষণাধর্মী কলাম লেখার পাশাপাশি তার লেখা ‘ব্যবহারিক পদার্থ বিজ্ঞান’ নামে একটি বই ১৯৮১ সালে বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...