আবরার হত্যার ঘটনায় বুয়েটের ২৬ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার


poisha bazar

  • ঢাবি প্রতিনিধি
  • ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০১:২০,  আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০১৯, ১১:০৮

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করেছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে আরো ছয় শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি প্রদান করা হয়েছে।

আবরার হত্যাকান্ডের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে বুয়েট বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিন এ সিদ্ধান্ত নেয়।

আজীবন বহিষ্কার হওয়া ২৬ জনের মধ্যে ২৫ জন পুলিশের অভিযোগপত্র অনুযায়ী অভিযুক্ত।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) রাতে বুয়েট বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিনের সদস্য সচিব ও ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ্ তথ্য জানানো হয়।

আজীবন বহিষ্কৃতরা হলেন: মেহেদী হাসান রবিন, মো. অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মো.মনিরুজ্জামান মনির,মো.মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মো.মুজাহিদুর রহমান, মেহেদী হাসান রাসেল, এহতাশামুল রাব্বী, খন্দকার তাবাককারুল ইসলাম, মুনতাসির আল জেমি, এ এস এম নাজমুস সাদাত, মো.শামীম বিল্লাহ, মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম, হোসাইন মোহাম্মদ তোহা, মুজতবা রাফিদ, মো.মিজানুর রহমান, মো.আশিকুল ইসলাম, এস এম মাহমুদ, ইসতিয়াক আহমেদ মুন্না, অমিত সাহা, মাজেদুর রহমান, শামসুল আরেফিন, মোয়াজ আবু হোরায়রা, মো. আকাশ হোসেন, মো. মোর্শেদ উজ জামান মণ্ডল ও মুহতাসিম ফুয়াদ।

শাস্তি প্রাপ্ত অন্য শিক্ষার্থীরা হলেন- আবু নওশাদ সাকিব, মো. সাইফুল ইসলাম, মোহাম্মদ গালিব, মো. শাওন মিয়া, সাখাওয়াত ইকবাল অভি ও মো. ইসমাইল।

সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে বুয়েটের ছাত্র কল্যাণ অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড.মিজানুর রহমান বলেন, আমরা ১৬ নভেম্বর রাতে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পেয়েছি। ডিসিপ্লিনারি বোর্ড ১৭, ২০ এবং ২১ নভেম্বর বৈঠক করেছে। আমরা ২১ নভেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত সাড়ে দশটা পর্যন্ত আলোচনা করে বোর্ডের সর্বশেষ সভা থেকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি।

 

মানবকণ্ঠ/এসআর




Loading...
ads





Loading...