সুশাসনের বড় চ্যালেঞ্জ আইনের শাসনের অভাব : আলী রীয়াজ


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪৮,  আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৯:৪১

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে সুশাসন অর্জনে আইনের শাসনের অভাব একটি বড় বাধা বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আলী রীয়াজ। রোববার দুপুরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রজানীতি বিভাগের দুইদিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের প্রথম দিনে ‘ফোর চ্যালেঞ্জেস টু গভর্ন্যান্স ইন সাউথ এশিয়া’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সুশাসন অর্জনে তিনি আরো তিনটি বাধা উল্লেখ করেন। সেগুলো হলো মধ্যে প্রধান কারণ হলো- নব্য গোষ্ঠীতত্ত্বের প্রয়োগ বা একই পরিবার ও গোষ্ঠী থেকে নেতা/শাসক বাছাই করা। যা উপমহাদেশের রাজনীতিতে বৃহৎ প্রভাব বিস্তার করেছে। এছাড়া সুশাসনের আন্তরায় বলে ‘বৈধ ক্ষমতার প্রতিযোগিতামূলক উৎস ও ‘শাসক এবং রাজনীতির মধ্যে সুসম্পর্ক না থাকা’ কে চিহ্নিত করেন তিনি। এ সময় তিনি দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিতে বড় চ্যালেঞ্জগুলো নিয়ে বিশদ আলোচনা করেন।

রোববার সকাল সাড়ে নয়টা থেকে বিকেল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত ‘গভর্ন্যান্স ইন দ্যা টোয়েন্টি ফার্স্ট সেঞ্চুরি ইন সাউথ এশিয়া: চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের প্রথম দিনে ৩টি সেশন অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সেমিনার কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নূরুল আলম। উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘ন্যায়ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় সুশাসন জরুরী। রাষ্ট্র এবং সমাজ ব্যবস্থায় সুশাসন নিশ্চিত করা সম্ভব হলে উন্নয়নের গতি ত্বরান্বিত হয়।’

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক রাশেদা আখতার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সম্মেলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক আল মাসুদ হাসানউজ্জামান এবং সভাপতিত্ব করেন সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সামসুন্নাহার খানম।

এরপর সম্মেলনে দুইটি পর্বে ছয়টি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। প্রথম পর্বে অধ্যাপক আল মাসুদ হাসানউজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, মধ্যপ্রদেশ ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল সায়েন্স রিসার্চ এর অধ্যাপক যতিন্দ্র সিং ও অধ্যাপক আলী রীয়াজ। দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিচালক ড. এম আসলাম আলমের সভাপতিত্বে মাহাত্মা গান্ধী সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক সঞ্জিব কুমার শর্মা, ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক টেক নাথ থাকাল, দিল্লি বিশ্বদ্যিালয়ের অধ্যাপক রেখা সাকসেনা প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন। এছাড়া আগামীকাল সকাল সাড়ে নয়টা থেকে ৬টি সেশনে ৩০টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ




Loading...
ads




Loading...