চীনে খাবার ডেলিভারিতে সমালোচনা


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:৪৭,  আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:০৫

পিএইচডিতে অধ্যয়নরত এক শিক্ষার্থী পড়াশোনার পাশাপাশি অবসর সময়ে খাবার ডেলিভারি করছেন। এ কাজকে ‘হীন’ বলে পুরো চীন জুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই শিক্ষার্থীর নাম মেং ওয়াই। সে চীনের ঝিনজিয়াং বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি ডিগ্রিতে অধ্যয়নরত। তিনি জানান, খাবার ডেলিভারি কাজের জন্য তিনি লজ্জিত নন। কারণ এ কাজের মাধ্যমেই তিন তার পরিবারের খরচ বহন করেন এবং এ কাজের মাধ্যমে উপার্জিত অর্থ তিনি পিএইচডি ডিগ্রির জন্য ব্যয় করেন।

দীর্ঘ সময় ধরে তিনি পিএইচডিতে অধ্যয়নরত। ২০১৪ সাল থেকে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে পিএইচডি ডিগ্রির প্রথম ধাপে ভালো করতে না পারায় হতাশ হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে হাল ছেড়ে না দিয়ে তিনি আবারও কাজ শুরু করেন। ২০২১ সালে তিনি আরও একটি ধাক্কা খান। সে সময়ে তার একটি সন্তান হয়। কিন্তু ওই শিশুটি জন্মগত হার্টের এক বিরল রোগ নিয়ে জন্মায়, যা তাকে দিনকে দিন মৃত্যুর দিকে নিয়ে যাচ্ছিল।

কিন্তু শিশুটির ওজন স্বাভাবিক না হওয়ায় তার চিকিৎসা করানো যাচ্ছিল না। এজন্য শিশুটিকে ৬০ দিন আইসিইউতে রাখা হয়। যখন তিনি হাসপাতালের বিল মেটাতে যাবেন তখন তার চোখ কপালে উঠে হয়ে যায়। তিনি বুঝতে পারলেন তার এখন অনেক টাকা প্রয়োজন।

পরবর্তীতে তিনি খাবার ডেলিভারি করার কাজে যুক্ত হয়ে পড়েন। যদিও এখান থেকে আয়ের অর্থ দিয়ে তার পড়ার খরচ উঠছে না। তারপরও এ কাজ তাকে পড়াশোনার উৎসাহ জুগিয়েছে। স্থানীয় টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেন।


poisha bazar