কিডজ কারাভান শিশুসাহিত্য পাণ্ডুলিপি পুরস্কার ঘোষণা


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৩৮

‘ভালো বইয়ের ছন্দ’ স্লোগান ধারণ করে চলতি বছর থেকে পথচলা শুরু করেছে ‘কিডজ কারাভান’। সৃজনশীল এই প্রকাশনা সংস্থা শিশু-কিশোর উপযোগী মানসম্মত বই প্রকাশ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এরই অংশ হিসেবে আয়োজন করা হয় ‘কিডজ কারাভান পাণ্ডুলিপি পুরস্কার ২০২২’।

বাছাই পর্বের কয়েকটি ধাপ শেষ করে বিজয়ীদের চূড়ান্ত নাম ঘোষণা করা হয়। ১৯ আগস্ট (শিশুতোষ ছড়া ও গল্প), ২৬ আগস্ট (কিশোর উপযোগী ছড়া-কবিতা ও গল্প), ও ০২ সেপ্টেম্বর (কিশোর উপযোগী উপন্যাস) পর্যায়ক্রমে ঘোষণা করা হয় চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম। শিশুতোষ ছড়া শাখায় আবেদীন জনী’র ‘ছড়ার ছা পড়ার ছা’ পাণ্ডুলিপি এবং শিশুতোষ গল্প শাখায় মাসুদ রানা আশিক’র ‘বাঘের ঘাড়ে ভর করেছে ভূত’ পাণ্ডুলিপি চূড়ান্ত বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

কিশোর উপযোগী ছড়া-কবিতা শাখায় ইমতিয়াজ সুলতান ইমরান’র ‘বইয়ের পোকা হয় না বোকা’ পাণ্ডুলিপি এবং কিশোর উপযোগী গল্প শাখায় অমল সাহা’র ‘কবি লাক্কু ভাই’ পাণ্ডুলিপি চূড়ান্ত বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

কিশোরদের উপযোগী উপন্যাস শাখায় ‘বল্টু মামার উপহার’ পাণ্ডুলিপির জন্য বিজয়ী হয়েছেন আবুল কালাম আজাদ। মানসম্মত পাণ্ডুলিপি না পাওয়ায় অনুবাদ ও সায়েন্স ফিকশন বিভাগে এ বছর কাউকে দেয়া হয়নি।

প্রকাশক সাজ্জাক হোসেন শিহাব, তাহমিনা তামান্না ও শাহীনুর আলম শাহীন জানান, ‘জুরি বোর্ডের নির্বাচনের ভিত্তিতে এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে কয়েকটি ধাপে বাছাইপর্ব শেষে চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হলো। আমাদের প্রত্যাশা এই উদ্যোগে সবাই পাশে থাকবেন।’

ছড়া শাখায় পুরস্কারপ্রাপ্ত ছড়াাকার আবেদীন জনী অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, ‘কিডজ কারাভান পাণ্ডুলিপি পুরস্কার ২০২২-এ বিজয়ী হয়ে আমি ভীষণ আনন্দিত। এই পুরস্কার আমাকে লেখার ক্ষেত্রে আরও বেশি উৎসাহিত করবে। মেধাবী জাতি গঠনের জন্য শিশুদের হাতে ভালো বই তুলে দেওয়া খুব বেশি দরকার। কিডজ কারাভান সেই কাজটিই হাতে নিয়েছে। এটা আমাদের দেশের জন্য, কোমলমতি শিশুদের জন্য এবং শিশুসাহিত্যের উৎকর্ষের জন্য যথার্থ বলে মনে হয়। আমার কাছে মনে হয়েছে এই পুরস্কার শতভাগ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নির্ধারণ করা হয়েছে। আমি সম্মানিত বোধ করছি এবং কিডজ কারাভানের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।’

গল্প শাখায় পুরস্কারপ্রাপ্ত গল্পকার মাসুদ রানা আশিক বলেন, ‘সামাজিক অবক্ষয় দেখে আমার জীবনে অভিজ্ঞতাগুলো কাগজের ক্যানভাসে আঁকার চেষ্টা করি। গল্পে রুপ দেই। এটুকু বলব, বাস্তবের চিত্রপটে লেখা আমার শিশুতোষ গল্পগুলো আপনাদের আশাহত করবে না। শিশুর মন সরল সৌন্দর্যতায় ভরা। আগামী স্বপ্নের সবুজ পৃথিবী ওরাই ছোঁবে। শিশুরা আলোকিত করবে চারপাশ। তাই আমাদের কর্তব্য শিশুদের সঠিক পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। শিশুদের জন্য লেখাটা আনন্দের এবং গর্বের। শিশুতোষ গল্পে পুরস্কার প্রাপ্তিতে আমি অনেক আনন্দিত ও উচ্ছসিত। আপনাদের সবার দোয়া ও অনুপ্রেরণা আমার সবসময়ের কাম্য।’

কিশোর উপযোগী ছড়া-কবিতা শাখায় বিজয়ী ইমতিয়াজ সুলতান ইমরান বলেন, ‘কিশোর ছড়া-কবিতা বিভাগে কিডস কারাভান পা­ুলিপি পুরস্কার ২০২২ পাওয়াতে আমি ভীষণ সম্মানিত বোধ করছি। কৃতজ্ঞতাসহ আন্তরিক ধন্যবাদ কিডস কারাভান প্রকাশনা পরিবারকে৷ কিডস কারাভান এগিয়ে যাক।’

কিশোর উপযোগী গল্প শাখায় বিজয়ী অমল সাহা পুরস্কার প্রাপ্তিতে তার অভিব্যক্তি জানিয়ে বলেন, ‘আমি আনন্দিত। কিডস ক্যারাভানের পান্ডুলিপি সম্পাদকম­লীকে আমার আন্তরিক ধন্যবাদ। এ পুরস্কার আমাকে আরও প্রত্যয়ী করেছে। কিডস ক্যারাভানের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক এটাই সর্বান্তকরণে চাইব। কারণ শিশুদের নিয়ে যারা এ কঠিন সময়েও কাজ করতে চাইছে এটা শুভবুদ্ধির অস্তিত্বকেই প্রমাণ করে। এ শুভযাত্রার জয় হোক।’

কিশোর উপযোগী উপন্যাস শাখায় বিজয়ী আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই পুরস্কার সম্মানের, দায়িত্বের। কিডজ কারাভানকে ধন্যবাদ।

উল্লেখ্য, ১৯ আগস্ট, ২৬ আগস্ট ও ০২ সেপ্টেম্বর পর্যায়ক্রমে নির্ধারিত ৭টি শাখার চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয় কিডজ কারাভান’র ‘ফেসবুক পেজে’ সরাসরি লাইভের মাধ্যমে।


poisha bazar