এবার জমল না বইমেলা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১০ এপ্রিল ২০২১, ১০:১৯

এবারের অমর একুশে বইমেলার শেষ শুক্রবার ছিল গতকাল। সাধারণ সময়ে ছুটির দিনে লেখক-পাঠক ও বইপ্রেমীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠত বইমেলা। কিন্তু গতকালের মেলায় ছিল না সেই চিরচেনা রূপ। সকাল থেকেই সারাদিন বইমেলার মেলা প্রাঙ্গণে ছিল না আশানুরূপ উপস্থিতি।

শেষ শুক্রবারে মেলা জমে উঠবে এবং আশাতীত বিকিকিনিতে সফলতার পথে ধাবিত হবে- প্রকাশকদের এমন প্রত্যাশার সাথে এবার প্রাপ্তির সমন্বয় ঘটেনি। এমন পরিস্থিতির জন্য লকডাউন নিয়ে সরকারের পরস্পরবিরোধী সিদ্ধান্তকেই দায়ী করলেন বিক্রেতারা।

শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মেলা ঘুরে দেখা যায়, শেষ শুক্রবারেও ছিল না স্টল ও প্যাভিলিয়নে বইপ্রেমীদের ছোটাছুটি। বিক্রি খুব একটা ছিল না বলে অলস সময় কাটিয়েছেন প্রকাশনা সংস্থায় কর্মরতরা। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ১৫ লাখ বর্গফুটের বিস্তৃত পরিসরের প্রতিটি স্টল ও প্যাভিলিয়ন থেকেই বেজে আসছিল হতাশার করুণ সুর। তবে এর মধ্যেও আশার আলো দেখছেন কয়েকজন প্রকাশক। শেষ দিন পর্যন্ত কি হয় এমন প্রতীক্ষার প্রহর গুনছেন কেউ কেউ।

অবসর প্রকাশনীর ব্যবস্থাপক মাসুদ রানা বলেন, রাস্তায়ই মানুষ নেই মেলায় কীভাবে মানুষ আসবে। শেষ শুক্রবারের মেলা নিয়ে যে প্রত্যাশা করেছিলাম সেই প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। শুক্রবারে বেশি ভিড় থাকে বলে আরেকদিন নিরিবিলি পরিবেশে এসে বই কিনবেন এমন চিন্তা থেকেও অনেকে হয়ত মেলায় আসেননি। দুই/একদিনের মধ্যে ভিড় বাড়তে পারে বলে আশা প্রকাশ করছি। শেষ দিন পর্যন্ত কি হয় দেখতে চাই।

মা সেরা প্রকাশনীর কর্ণধার দেওয়ান মাসুদা সুলতানা বলেন, অনেক আশা করে মেলায় স্টল দিয়েছিলাম। এখনতো মনে হচ্ছে এতদিন যা খরচ করেছি সেই টাকাও তুলতে পারব না। এবারের অভিজ্ঞতা আমার অনেক কাজে লাগবে।

অন্যপ্রকাশের বিক্রয়কর্মী কাজী শান্তা বলেন, বিগত বছরগুলোর শেষ শুক্রবারে যে পরিমাণ লোক আসে এবং বিক্রি হয় এবারের শেষ শুক্রবারে এর দশভাগের এক ভাগ মানুষও আসেনি। দর্শনার্থী আর বইপ্রেমীরাই যদি না আসে তাহলে বিক্রি হবে কীভাবে? আমরা এখনো পাঠকদের অপেক্ষায় আছি।

নতুন বই: বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্যমতে, গতকাল মেলার ২৩তম দিনে নতুন বই এসেছে ৮৮টি। এর মধ্যে গল্পের বই রয়েছে ১০টি, উপন্যাস ৯টি, প্রবন্ধ ৬টি, কবিতা ৩৪টি, গবেষণা ১টি, ছড়া ১টি, শিশুসাহিত্য ২টি, জীবনী ৩টি, মুক্তিযুদ্ধ ৪টি, নাটক ১টি, বিজ্ঞান ২টি, ভ্রমণ ১টি, ইতিহাস ২টি, রাজনীতি ১টি, বঙ্গবন্ধু বিষয়ক ৩টি, রম্য/ধাঁধা ২টি, ধর্মীয় ১টি, সায়েন্সফিকশন ২টি ও অন্যান্য বিষয়ের ৩টি। গত ২৩ দিনে মোট বই প্রকাশ হয়েছে ২ হাজার ৪২১টি।

 






ads
ads