সুশান্ত পোদ্দার এর দশটি পরমাণুকাব্য

সুশান্ত পোদ্দার এর দশটি পরমাণুকাব্য
সুশান্ত পোদ্দার - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৫ জুলাই ২০২০, ১২:৪৫

১.
সামাজিক আক্রোশ
বাধ্য প্রণয়
সৃষ্টির অবক্ষয়।

২.
আরাধ্যে কামদেব
মগজে ভ্রান্তি
শোধ‌নে পূর্ণ শান্তি।

৩.
উ‌ড়ো কথার জাল
তথ্য বিভ্রাট
গুজবে সর্বনাশ!

৪.
সৌন্দর্যের ছোঁয়া
শৈল্পিক মন
সৃষ্টির উন্মাদনা!

৫.
স্ফুরিত ছন্দধারা
বৃ‌ষ্টি‌বিলাস
‌শিহরণ আভাস।

৬.
দাম্ভিক আচরণ
স্বেচ্ছাচারিতা
কলুষিত বন্ধুতা।

৭.
অপ্সরা অন্তঃপ্রাণ
কামা‌ভিলাষ
অন্ধ-বিশ্বাসে চাষ!

৮.
মতের মূল্যায়ন
সাম্য চেতন
মানবিক বন্ধন।

৯.
টগবগিয়ে ছোটা
খানিক দোলা
কোচোয়ান সচল।

১০.
উদ্দেশ্যহীন খোঁজা
রহস্য-মন
কৌতূহলী জীবন।


পরমাণুকাব্যঃ পরমাণুর গঠনরীতি ও বৈশিষ্ট্যের সাথে সঙ্গতি রেখে তিন ধাপে ১৭ মাত্রায় গঠিত এক নতুন ফর্মেটের কবিতা যা কাঠামোগত ভাবে হাইকুর আদলের তবে বৈশিষ্ট্যগত ভাবে পরমাণুর গঠনরীতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। পরমাণুর ঋণাত্মক চার্জযুক্ত ইলেকট্রন ও ধনাত্মক চার্জযুক্ত প্রোটন সংখ্যার ভেতরে যেমন সমতা থাকে সেই বৈশিষ্ট্যকে মূল ধরে পরমাণুকাব্য প্রথম ও তৃতীয় লাইনে সমান সংখ্যক ৭ মাত্রা ধারণ করে আর দ্বিতীয় লাইনে থাকে ৫ মাত্রা। পরমাণুর কেন্দ্র নিউক্লিয়াসে যেমন নিউট্রন ও প্রোটন মিলেমিশে থাকে তেমনি পরমাণুকাব্যের প্রথম দুটি লাইন অঙ্গাঙ্গীভাবে মিশে থাকে।

পরমাণুকাব্যে প্রথম লাইনে কোনো সমস্যাকে তুলে ধরা হয় অথবা নির্দিষ্ট ভাবের অবতারণা করা হয় দ্বিতীয় লাইনে প্রকাশিত ভাবনার অর্ন্তনিহিত তাৎপর্য থাকে আর তৃতীয় লাইন মূলত প্রথম দুই লাইনের সাথে সংযোগ স্থাপন করে প্রকাশিত সমস্যা হতে উত্তরণের পথনির্দেশ করে অথবা ভাবের পরিণতি ঘটে। এটি মূলত এক ধরণের চিন্তাপ্রবণ কবিতা যা বিভিন্ন সমস্যা ও তা থেকে উত্তরণকে তুলে ধরে।

মানবকণ্ঠ/আরএস

 





ads






Loading...