খোকা থেকে বঙ্গবন্ধু

আবিদ হানিফ ফাইয়াজ

মানবকণ্ঠ
ছবি - আবিদ হানিফ ফাইয়াজ

poisha bazar

  • ১৩ মার্চ ২০২০, ১৩:১৪

যাকে বাদ দিলে বাংলাদেশের ইতিহাস বলা যাবে না তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাঁর জন্ম হয় ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ বুধবারে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে বনেদি শেখ পরিবারে। তাঁর বাবা শেখ লুৎফর রহমান তাঁর নাম রাখেন খোকা। খোকা খুব আদরের নাম। দিনে দিনে বড় হয় খোকা। পায়ে হেঁটে সেই খোকা স্কুলে যায়। দুচোখ মেলে সে বাংলার মাঠ-ঘাট, পথ-প্রান্তর, সোনালি ধানের ক্ষেত দেখে এবং তাঁর চোখ জুড়িয়ে যায়। খোকা যত বড় হয় তত তার বন্ধুর সংখ্যা বাড়ে। খোকা প্রায় তার বন্ধুদের বাড়িতে নিয়ে আসে এবং তার মাকে বলে মা ওদের খেতে দাও।

মা আনন্দের সাথে তার বন্ধুদের খেতে দেন। বর্ষাকালে খোকার বাবা তাকে একটি ছাতা কিনে দেন। একদিন খোকা ছাতা ছাড়া ভিজে ভিজে বাড়ি ফেরে। কারণ সে তার ছাতা তার বন্ধু গোপালকে দিয়েছিল। শীতের সময় খোকার বাবা তাকে একটি চাদর কিনে দেন। একদিন চাদর ছাড়াই খোকা বাড়িতে আসে। মা বলে -‘তোর চাদর কোথায়?’ খোকা বুক ফুলিয়ে বলে, ‘মাগো পথের ধারে গাছের নিচে এক বৃদ্ধ মহিলা শীতে কাঁপছিল। আমি আমার চাদরটি তাকে দিয়েছি’। মা অবাক হয়ে খোকার দিকে তাকিয়ে থাকেন এবং ভাবেন গরিব মানুষের প্রতি তার এত দরদ। ও নিশ্চয় বড় হয়ে মানুষের জন্য অনেক কিছু করবে। তিনি ছোটবেলা থেকে অনেক দয়ালু ও পরোপকারী ছিলেন।

তিনি সাঁতার কাটতে পছন্দ করতেন। তিনি পশুপাখি ভালোবাসতেন। তিনি বাড়িতে পুষতেন ময়না ও শালিক। তিনি বোনদের সাথে নিয়ে পুষতেন কুকুর ও বানর। তার প্রিয় খেলা ছিল ফুটবল। খোকার বন্ধু গোপাল করুণ সুরে বাঁশি বাজায়। খোকা বন্ধুকে বলে, ‘তোর বাঁশির সুরে আনন্দ নেই কেন রে গোপাল?’ গোপাল হতাশ হয়ে বলে,‘আমার চারদিকের মানুষের জীবনে আনন্দ নেই রে খোকা’। খোকা নিশ্চুপ থেকে ভাবে, তাইতো। আমার চারদিকে এমন অবস্থাই তো দেখছি। এই অবস্থা বদলাতে হবে। দেশের নানা কথা ভাবতে ভাবতে বড় হয় খোকা। স্কুল পার হয়ে কলেজে ঢোকে সে।

বাংলার মানুষের কথা, দেশের কথা তাঁকে নিয়ত ভাবায়। তিনি পার হন কলেজের চৌকাঠ। আরো বড় হন তিনি। যুক্ত হন রাজনীতির সঙ্গে। গরিব মানুষের দুঃখ দূর করার জন্য আন্দোলন করেন। আস্তে আস্তে তিনি হয়ে ওঠেন এই জাতির নেতা। দেশের মুক্তির জন্য ১৯৭১ সালে ডাক দেন স্বাধীনতার।
তিনিই আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

মানবকণ্ঠ/জেএস




Loading...
ads






Loading...