• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • ই-পেপার

শরিয়ত বয়াতির মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন, প্রতিবাদী গানের আসর

মানবকণ্ঠ
শরিয়ত বয়াতির মুক্তির দাবি - মানবকণ্ঠ।

poisha bazar

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৬ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০৭

সম্প্রতি বাউল গানের অনুষ্ঠানে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া টাঙ্গাইলের শরিয়ত বয়াতির মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও প্রতিবাদী বাউল গানের আয়োজন করেছে সাংস্কৃতিক সংগঠন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও 'নিপীড়নের বিরুদ্ধে শাহবাগ'।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি ২০২০) রাজধানীর শাহবাগে বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে এসব প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ উপস্থিত শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী, লেখক, শিল্পী, আইনজীবী ও সাংবাদিকরা শরিয়ত বয়াতির উপর রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন ও সাম্প্রদায়িক প্রতিহিংসার প্রতিফলন ঘটেছে বলে মন্তব্য করেন। তাঁরা এরকম অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যাপারের অবসান ও শরিয়ত বয়াতির অতিসত্বর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক গীতি আরা নাসরীন ও অধ্যাপক কাবেরী গায়েন, সাংবাদিক প্রবীর শিকদার, লেখক ও প্রকাশক রবীন আহসান, গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠক আকরামুল হক, আইনজীবী জীবনানন্দ জয়ন্ত এবং সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মী আবদুল্লাহ আল নোমান।

উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সহ-সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে’র সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক ড. সফিউদ্দীন আহমেদ।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (০৯ জানুয়ারি ২০২০) শরিয়ত বয়াতির বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মির্জাপুর উপজেলার আগধল্যা গ্রামের মো. ফরিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় মামলা করেন।

শনিবার (১১ জানুয়ারি) ভোরে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার বাশিল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওইদিনই টাঙ্গাইলের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. আসলাম মিয়ার আদালতে হাজির করে মির্জাপুর থানা পুলিশ দশ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। শুনানি শেষে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) আদালতের মাধ্যমে শরিয়ত বয়াতিকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে





ads







Loading...