হ্যারিকেন 'ইয়ান' মোকাবেলায় ফ্লোরিডাবাসী প্রস্তুুত


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:১২

জুয়েল সাদত:: ছোটবলায় টিভিতে নদী ভাঙ্গনের ছবি দেখতাম। নদী ভেঙ্গে বাড়ী ঘর সব নিয়ে যায়। ভাবতাম নদী ভাঙ্গনের এলাকা ও হাওরের এলাকায় মানুষ কেন থাকে। আসলে মায়া। আমাদের শহর স্টেট ফ্লোরিডা ট্রপিক্যাল স্ট্রমের রাজধানী আমি বলে থাকি। ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, টর্নেডো, হ্যারিকেন আমাদের নিত্যসঙ্গী। আমাদের ফ্লোরিডাকে অনেকে ভয় পায় এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সঙ্গে অনেকেই এলিগেটরকে ভয় পায়। মনে করে আমাদের বামে-ডানে কুমির নিয়ে আমরা থাকি। বিশেষ করে আমেরিকানরা। আমাদের কাছে সব ডাল ভাত।

২০২২ সালের প্রথম হ্যারিকেন আসছে, সারা শহর নড়ে চড়ে বসেছে। জামাইকা, কিউবা, হাভানা হয়ে IAN. আইয়ান আমাদের ফ্লোরিডাকে হিট করবে। এরকমই ধারনা করে গ্রোসারী খালি করে ফেলছেন নাগরিকরা। মোমবাতি, পানি, ব্যাটারী, তেরপাল, উড সবকিছু কিনে প্রস্তুুত অনেকেই। মেট্রোলজিষ্টরা মানে আবহাওয়া বিশারদরা তাদের মন উজাড় করে ভয় দেখাচ্ছেন। তাদের চাকরিতে ভাল পারফর্মেন্সের সুযোগ এই সময়টা। টিভির চ্যানেলে ২৪ ঘন্টা আপডেট। হোমডিপো, লউসকে বিজনেস করিয়ে এই মেট্রেলজিষ্টরা। আমাদের প্রবাসী বাংলাদেশীদের মনে তেমন কোন দাগ কাটে না। মসজিদের বাহিরে এ নিয়ে কোন আলোচনা নাই। তবে আমেরিকানরা ফ্লোরিডার সব প্ল্যান ক্যানসেল করে ফেলেছেন। সপ্তাহব্যাপী ফ্লোরিডায় থাকা যাবে না। অনেকে ফ্লোরিডা থেকে চলে যাচ্ছেন। আমি এই ট্রপিক্যাল রাজধানীতে ২১ বছর।

এই ২১ বছর আছি সেন্ট্রাল ফ্লোরিডার ওরলান্ডো ও কিসিমিতে। যেখানে ডিজনি ওয়ার্ল্ড। এখানে নর্থ আটলান্টিক হ্যারিকেন ট্রপিক্যাল নন ট্রপিক্যাল সাইক্লোন ৭৯টি হয়েছে এবং ভয়াবহতায় গত ২০০০ সাল থেকে ১২৩ বিলিয়ন ডেমেজড করে গেছে পুরো ফ্লোরিডাকে এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৩৯ জন।

১২৩ বিলিয়ন ডেমেজড হবার পরও পৃথিবীর সর্ববৃহৎ টুরিজম ইন্ডাস্ট্রি টিকে আছে। ওয়াল্ট ডিজনি ওয়ার্ল্ড এখনও সুখের স্বপ্ন দেখায়। প্রতিবছর নূন্যতম একটা ছোট বা মাঝারী ট্রপিক্যাল স্ট্রোর্ম ফ্লোরিডা হয়ে যায়। ২০০৪ এ সবচেয়ে বড় ট্রপিক্যাল স্ট্রোর্মে প্রতি ৫ বাসার মাঝে একটা বাড়ি ডেমেজড হয়েছিল। ২০০৫ সালে হ্যারিকেন উইলমার পর কেটে গেছে ১১ বছর। ১২ বছরের মাথায় ১০ অক্টোবর ২০১৮ হ্যারিকেন মাইকেল ফ্লোরিডার নিকটবর্তী মেক্সিকো বিচ দিয়ে ৫ ক্যাটাগরিতে হিট করেছিল। সেটা ছিল সবচেয়ে ভয়ঙ্কর হ্যারিকেন, যা ছিল হাই স্কেলের হ্যারিকেন।

আবার হারিকেন মাইকেল ছিল ১৯৯২ সালের এনড্রোুর চেয়ে শক্তিধর। এরপর ধাপে ধাপে হ্যারিকেন চার্লি, জিন, ডেনিস, উইলমা এবং ইরমা ছিল ফ্লোরিডার ল্যান্ডমার্ক হ্যারিকেন। দীর্ঘ চার বছর পর ২০২২ এর সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে হ্যারিকেন ইয়ান ২৮ সেপ্টেম্বর ফ্লোরিডাকে হিট করবে।

এ লেখা যখন লিখছি হ্যারিকেম ইয়ানকে মোকাবেলা করার প্রস্তুুতিতে ব্যস্ত সবাই। মেট্রোলজিষ্টরা নানা তথ্য উপাত্ত দিয়ে বিশ্লেষণ করছেন। গ্রোসারী স্টোরগুলো খালি হয়ে গেছে যাচ্ছে। যে রকম প্রস্তুুতি নেয়া দরকার সে রকমই অনেকের নিচ্ছেন। টুরিস্ট এরিয়া ওরলান্ডো, যেখানে হাফ মিলিয়ন টুরিস্ট থাকেন সব সময়, সেখান থেকে টুরিস্টরা সব কিছু ক্যানসেল করে বাড়ি ফিরছেন। কিছুটা ভীতি কাজ করে টুরিস্ট দের মাঝে। আগামী ২৭/২৮/২৯ সেন্ট্রাল ফ্লোরিডার স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে খুশির খবর হচ্ছে, হ্যারিকেন ইয়ানের ভয়াবহতা কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

অনেকেই হোম ডিপো থেকে কাট কিনে বাড়ী ঘর কাভারড করেছেন। বালি ভর্তি বস্তা দিয়ে বাসা বাড়ীতে পানি ঢুকার রাস্তা বন্ধ করছেন। পর্যাপ্ত পানি, ব্যাটারী, জেনারেটর, শুকনো খাবার মজুত করেছেন।

যারা বীচ এরিয়াতে থাকেন তাদেরকে শেল্টার সেন্টারে নেয়া হচ্ছে। তাদের নিরাপদ দূরত্বে চলে যাবার তাগাদা দেয়া হয়েছে। গভর্নর ডি সেনটাস ফ্লোরিডার ইমার্জেন্সি টিম নিয়ে সব প্রস্তুুতি সম্পন্ন করেছেন। বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যে ৭টায় ১২০ মাইল বেগে টেম্পা এরিয়ে দিয়ে ইয়ান বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত যাবে। বুধবার সকাল থেকে সারাদিন বৃষ্টি থাকবে। টেম্পা বে এরিয়া দিয়ে ইয়ান বুধবার রাত ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮ পর্যন্ত যাবে।

ক্যাটাগরি ১. ৭৪ থেকে ৯৫ মাইল।
ক্যাটাগরি ২. ৯৬-১১০ মাইল।
ক্যাটাগরি ৩. ১১১-১২৯ মাইল, সেটাতে মেজর ডেমেজড করে।
ক্যাটাগরি ৪. ১৩০-১৫৬ মাইল, ড্যাভাসটাটিং ডেমেজড করে।
ক্যাটাগরি ৫. ১৫৬-প্লাস ক্যাটাসটপিক ডেমেজড, যেটা পুরো শহর মাটিতে মিশিয়ে দিতে পারে। হ্যারিকেনের ৫টি ক্যাটাগরিগুলো সব সময় উঠানামা করে।

হ্যারিকেন ইয়ান ক্যাটাগরি ৫ থেকে লো ডাউন হয়ে ৪ থেকে ৩ এ নামছে। সেটা ২ বা ১ এ নেমে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে হ্যাভী রেইন থাকবে বুধবার ও বৃহস্পতিবার। প্রায় ১২ থেকে ১৮ ঘন্টা থাকবে বিপদজনক সময়, তবে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সেটা অনেকটাই কমে যেয়ে সেইফ মুডে আসবে। তবে সবকিছুই নির্ভর করে ১০০ মাইল এরিয়ার ভেতর, অনেক সময় গতি পরিবর্তিত হতে পারে নানা ট্রপিক্যাল মুভমেন্টের উঠানামায়।

উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় কাটাবেন আগামী কয়েকটা দিন ফ্লোরিডাবাসী। বিশেষ করে বুধবার, বৃহস্পতিবার বৃষ্টিপাতে ডুবিয়ে রাখবে সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা। ট্রপিক্যাল সিটির রাজধানী ফ্লোরিডাবাসী সব দুর্যোগ কাটিয়ে উঠবেন সহসাই।


poisha bazar