স্পেনে কবির হুসেনের অর্গানিক সবজি বাগান


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯:০১

ভাষা, সংস্কৃতি ও খাদ্যভ্যাস একটি জাতির কিংবা ব্যক্তির পরিচয় বহন করে। সীমানা পাড়ি দিলেও হৃদয়ে ধারণ করেন নিজস্বতা, ভালোবাসা এবং ভালোলাগার প্রিয় স্বদেশ। সাত সমুদ্র তেরো নদী পেরিয়ে প্রবাসেও বাঙালিরা নিজেদের রসনা স্বাদের সঙ্গে মিল রেখেই সুযোগ পেলেই বাড়ির আঙ্গিনায় টবে কিংবা জমিতে চাষাবাদের চেষ্টা করেন।

তেমনই একজন মাদ্রিদের কবির হুসেন। ব্যবসার পাশাপাশি শখেরবশে গড়ে তুলেছেন এক অর্গানিক সবজি বাগান। রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহার একেবারে না করে, জৈব সার দিয়েই গড়ে তোলা এ অর্গানিক সবজি বাগান। যার ফলন দেখে কবির হোসেন নিজেই অভিভূত।

মাদ্রিদের ভিজাভের্দে ভাখতে পাঁচশতক জায়গা নিয়ে তার স্বপ্নের সবজি বাগান। শুধুমাত্র মনের আনন্দ ও নিজের হাতের ফলনের চিন্তা থেকেই সবজি ক্ষেত। প্রকৃতির সান্নিধ্যে সময়ও কাটে সজীবতায়। খুলনার বাগেরহাটের কবির হুসেন তার সবজি বাগানে এলেই যেন বাংলাদেশকে খুঁজে পান। এ বাগান করতে পেরে তিনি বেশ আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত।

এ বছর শুরু করেছেন সবজি বাগানের, তেমন কোন অভিজ্ঞতা ছিলো না, প্রচণ্ড আগ্রহ নিয়ে ছোটবেলায় বাড়ির আঙ্গিনায় মায়ের সবজি ক্ষেত দেখেই ফলানোর চেষ্টা করেন- আলু ,সিম , লাউ, কুমড়ো, করলা, শসা, বেগুন, ঢ্যাঁড়স, শিম, মরিচ, ডাঁটা, টমেটো, পুঁইশাক, পাটের বীজ, কাঁচা মরিচ। চেষ্টা বৃথা যায়নি ভালো হয়েছে ফলন। সবজি বাগানে আছে স্পেনের জনপ্রিয় ফল আঙ্গুর, আপেল, পেয়ার, তরমুজ ও আনারও।

বাঙালিরা প্রবাসের মাটিতে এসব চাষে ফিরে পান দেশি সবজির স্বাদ। স্বেচ্ছায় নির্বাসন নেওয়া, অথবা দিন বদলের নেশায় সীমানা ভাঙা প্রবাসীর ভেতরেও নীরবে নিস্তব্ধে কাঁদে মাটির টান।

এক ছেলে এক মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে ছোট্ট সংসার কবির হুসেনের। তিনি বলেন, যে কেউ ইচ্ছে করলে এরকম সবজি বাগান করতে পারবে, তবে প্রচণ্ড আগ্রহ এবং ভালোবাসা থাকতে হবে।

সবজির বাগান করে তাদের অনেকটুকু চাহিদা এ বাগান থেকেই মিটে যায়। ফলে ঘরে বসেই তারা বাংলাদেশের সবজির স্বাদ পান। আর নিজের বাগানের সবজি দিয়ে মায়ের হাতের বানানো নানা রকম তরকারি রান্না, আর ভর্তা বানিয়ে তৃপ্তিভরে খান। পাশাপাশি বন্ধু-বান্ধব ও প্রতিবেশীদের সবজি বিলিয়ে দেন।

প্রবাসের মাটিতে চাকরি ও সংসার সামলে অবসর সময়ে চাষাবাদ ও দেশের শাকসবজির প্রতি প্রবল মমত্ববোধে থেকেই বাঙালিরা এ ঐতিহ্যবাহী কৃষিকাজ করেন। মূলত কবির হুসেন তার মায়ের বাড়ির উঠোনে সবজি ক্ষেতের অনুপ্রেরণা থেকেই এমন চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

মানবকণ্ঠ/এনএস


poisha bazar

ads
ads