লেবাননে নিখোঁজ বাংলাদেশী নারী কর্মী

জসিম উদ্দীন সরকার, লেবানন

লেবাননে নিখোঁজ বাংলাদেশী নারী কর্মী
নিখোঁজ লেবানন প্রবাসী শারমিন আক্তার - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০২ মে ২০২০, ০৯:৫৫,  আপডেট: ০৫ মে ২০২০, ১৫:২১

গত ২৭ এপ্রিল সোমবার লেবাননের আধুনিস এলাকা থেকে নিখোঁজ রয়েছেন লেবানন প্রবাসী শারমিন আক্তার। শরীরে করোনা উপসর্গ রয়েছে ভেবে চিকিৎসা নিতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। পরবর্তীতে বিভিন্ন হাসপাতাল ও বন্ধুবান্ধবের নিকট খুঁজ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

শারমিন মাদারীপুর জেলার কালকিনির কামাল বেপারীর মেয়ে, তার মায়ের নাম ফজিলা বেগম।

জানা যায়, ঘটনার পরের দিন শারমিনের স্বামী আহমেদ লেবানন কমিউনিটি নেতা সৈয়দ আমীরকে তার স্ত্রীকে না খুঁজে পাওয়ার বিষয়টি জানান, সৈয়দ আমীর হোসেন বাংলাদেশ দূতাবাসকে বিষয়টি অবগত করেন। শারমিনের স্বামীও তার স্ত্রীকে খুঁজতে বাংলাদেশ দূতাবাসে লিখিত অভিযোগ করেন। শারমিন বেশ কিছুদিন ধরে ঠাণ্ডা জ্বরে ভুগছিল বলে জানান তার স্বামী।

শারমিনের স্বামী আহমেদ জানান, প্রতিদিনের নেয় গত ২৭ এপ্রিল সোমবার সে কাজে চলে যায়, শারমিন তাকে হোয়াটঅ্যাপে একটি ভয়েস বার্তা জানান যে সে চিকিৎসা নিতে হাসপাতালে যাবেন। শারমিনের ভয় ছিল যেহেতু ঠান্ডা জ্বর, যদি করোনা হয়ে থাকে তাই সে চিকিৎসা নিতে যান। কিন্তু কোন হাসপাতালে যাচ্ছেন তা জানায়নি। জানিয়েছে ফার্মেসী থেকে হাসপাতালের খবর নিয়ে যে কোন হাসপাতালে ভর্তি হবেন। এরপর শারমিনকে আর কোন খুঁজে পাওয়া যায়নি। ওইদিনের পর থেকে তার মোবাইলও বন্ধ।

সৈয়দ আমীর হোসেন জানান, সে বিস্তারিত জানার পর বাংলাদেশ দূতাবাসে চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স আব্দুল্লাহ আল মামুনকে বিষয়টি অবগত করেন। দূতাবাস খুঁজ নিয়ে নিবেন বলে আশ্বাস দেন।

দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বিষয়টি অবগত হবার পর দূতাবাসের পক্ষ থেকে লেবানন বিভিন্ন হাসপাতালে খুজ নিয়েছি, বিশেষ করে যে সকল হাসপাতালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসা দিচ্ছে সে সকল হাসপাতালে খুঁজ নিয়ে মেয়েটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads






Loading...