ভাগ্যের চাকা ঘুরানো প্রবাসীদের ঈদ


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১২ আগস্ট ২০১৯, ১২:১০

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ! এ কথা সবাই মানলেও, প্রবাসীদের জীবনে এর বাস্তবতা খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। প্রবাসীদের ঈদ উদযাপন ভিন্নরকম। প্রবাসে অনেকেই আছেন যাদের জন্য ঈদের দিনটাও কষ্টকর। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদকে কেন্দ্র করে মানুষের প্রত্যাশা আর প্রস্তুতির কমতি থাকে না। একের পর এক ঈদ আসে যায়, প্রবাসীদের ঈদ রয়ে যায় নিঃসঙ্গতায় ভরা।

খুলনা জেলার কয়রা থানার বাসিন্দা মিরাজ কুয়ালালামপুরে একটি রেস্টুরেন্টে কাজ করেন। তিনি বলেন, পরিবার-পরিজন ছেড়ে টানা চার বছর ধরে দেশের বাইরে ঈদ করছি।

ঈদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে চোখের কোণে পানি জমে আসে মিরাজের। ঈদ-উল-ফিতর না হোক অন্তত ঈদ-উল-আযহাটা পরিবারের সঙ্গে কাটাতে চান তিনি। কিন্তু ভিসা জটিলতায় সেটি সম্ভব হবে কি না সেই শঙ্কায় আছেন মিরাজ।

তবে দীর্ঘদিন ধরে যারা প্রবাসে আছেন তারা খানিকটা হলেও নিজেদের সামলে নিতে পারেন। কিন্তু পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন আসলে ভিন্ন রকম অনুভূতির। ঠিক সেই কথাই বলছিলেন ১৩ বছর ধরে মালয়েশিয়ায় থাকা বিক্রমপুরের বাসিন্দা সেলিম। তিনি বলেন, ঈদ মানেই আনন্দ, ঈদ মানেই খুশি, তবে আত্মীয়-স্বজনদের ছেড়ে ঈদ উদযাপন করা সত্যিই কষ্টের। বিশেষ এই দিনে বাবাকে খুব মনে পড়ছে। ছোটকাল থেকে প্রতিটি ঈদে তার হাত ধরে ঈদগাহে যেতাম নামাজ আদায়ের জন্য। কিন্তু তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই।

কিন্তু বছর খানেক আগে যারা বিদেশ গিয়েছেন, তাদেরও কী মন পোড়ে না বাড়ির জন্য? কাতার প্রবাসী নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা নুরুল বলেন, প্রথম যখন কাতার এসেছি খুব কষ্ট লেগেছে। একে তো প্রথম কয়েক মাস কোনও কাজ পাইনি, তার ওপর আবার পরিবার ছেড়ে বিদেশ-বিভূঁইয়ে থাকা মানসিকভাবে কষ্টদায়ক।

যে প্রবাসীরা রেমিটেন্সের টাকা পাঠিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখছেন, তারাই তাদের প্রত্যেকেরই ক্যালেন্ডারের পাতায় বয়েছে উৎসবহীন দিন। কিন্তু তারপরও জীবন থেমে থাকে না। পরিবারের সদস্যদের মুখে হাসি দেখেই সব ভুলে যান এই প্রবাসীরা।

রিয়াদ প্রবাসী অটোক্যাড ইঞ্জিনিয়ার নূর হোসেন বলেন, ১৭ বছরের প্রবাস জীবনে প্রতিটি ক‍ুরবানীর ঈদ দেশে পরিবারের সঙ্গে কাটানোর চেষ্টা করেছি। এবার বিভিন্ন কারণে যাওয়া হয়নি, তাই বেশ খারাপ লাগছে। এবার দেশে যেতে না পারলেও, ফোনে পরিবারের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করার চেষ্টা চালাচ্ছি।

মদিনা প্রবাসী ফজলে এলাহী বলেন, পৃথিবীতে প্রবাসের কষ্টটা একটু অন্য ধরনের। সব আছে, তবু যেন কিছুই নেই। প্রবাসী না হওয়া পর্যন্ত কেউ তাদের কষ্ট অনুভব করতে পারবে না। প্রবাসীদের কষ্টে বাড়তি মাত্রা যোগ করে ঈদ এবং বিশেষ উৎসবের দিনগুলি।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ

 




Loading...
ads





Loading...