যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ৭ হাজার ৭শ ফ্লাইট বাতিল


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৬ আগস্ট ২০২২, ১৬:৩৮

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূল অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি-বজ্রপাত ও বিমানকর্মী সংকটের কারণে শুক্রবার দেশজুড়ে ৭ হাজার ৭শ’রও বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। দেশটির ইতিহাসে একদিনে এত বেশি সংখ্যক ফ্লাইট বাতিল হওয়ার ঘটনা এর আগে ঘটেনি।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবাসাইট ফ্লাইটঅ্যাওয়ার জানিয়েছে এ তথ্য। সবচেয়ে বেশি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে রাজধানী ওয়াশিংটনে। তারপরই দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে রয়েছে দেশটির উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য নিউইয়র্কের তিন বিমানবন্দর— লা গুরাদিয়া, লিবার্টি ইন্টারন্যাশনাল ও রেগান ন্যাশনাল এয়ারপোর্ট।

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলবর্তী বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে আবহাওয়াগত দুর্যোগের কারণে গত প্রায় ৬ সপ্তাহ ধরেই বিঘ্নিত হচ্ছে দেশটির অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল। বৃহস্পতিবার দেশজুড়ে ১ হাজার ২৪৮টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়, যা শুক্রবারের আগ পর্যন্ত ছিল গত ছয় সপ্তাহে সর্বোচ্চসংখ্যক ফ্লাইট বাতিলের রেকর্ড।

সাউথওয়েস্ট এয়ারলাইনসের ৩৭০টি বা ৯ শতাংশ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এ ছাড়া এয়ারলাইনসটির আরও ১ হাজার ৮০০ বা ৪৬ শতাংশ ফ্লাইট দেরিতে ছেড়েছে।

সাউথইস্ট এয়ারলাইনসের কর্মকর্তারা সিএনএনকে বলেন, ‘আবহাওয়াসংক্রান্ত নানা চ্যালেঞ্জ নিয়ে আমাদের কাজ করতে হচ্ছে। এ কারণে এ সপ্তাহে দেশজুড়ে আমাদের যাত্রী পরিষেবায় বিঘ্ন ঘটছে।’

করোনা মহামারিতে দুই বছর প্রায় নিস্ক্রিয় থাকার পর চলতি বছর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ফের পুরোদমে শুরু হয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল। কিন্তু কর্মী স্বল্পতা, বৈরী আবহাওয়া ও এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ব্যাপক ভোগান্তির মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে বিভিন্ন মার্কিন বিমান পরিষেবা সংস্থাকে।


poisha bazar