প্রধানমন্ত্রীকে সুস্থ হওয়ার গল্প শোনালেন প্রথম করোনা রোগী

প্রধানমন্ত্রীকে সুস্থ হওয়ার গল্প শোনালেন প্রথম করোনা রোগী
প্রধানমন্ত্রীকে সুস্থ হওয়ার গল্প শোনালেন প্রথম করোনা রোগী - ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩১ মার্চ ২০২০, ১৮:১০,  আপডেট: ০১ এপ্রিল ২০২০, ০০:২৫

পড়াশোনার জন্য জার্মানিতে ছিলেন বাংলাদেশের ছেলে ফয়সাল শেখ। ছুটি পেয়ে গত পহেলা মার্চে দেশে ফিরেন। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি নিজ থেকেই সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে (আইইডিসিআর) যান এবং তার মধ্যে করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ে। তিনিই ঢাকায় শনাক্ত হওয়া প্রথম করোনা রোগী এবং বর্তমানে সুস্থ হয়ে নিজ বাড়িতে আছেন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও দেশব্যাপী চলমান কার্যক্রম সমন্বয়সহ সার্বিক পরিস্থিতি জানতে ভিডিও কনফারেন্স করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে ফয়সাল নিজের সুস্থ হওয়ার অভিজ্ঞতার কথা প্রধানমন্ত্রীকে জানান।

প্রধানমন্ত্রীকে ফয়সাল বলেন, আমি জার্মানিতে পড়াশোনা করি। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে গত ১ মার্চ আমি দেশে আসি। কিন্তু ১০ দিন পর আমার শরীর খুব খারাপ হওয়ার বিষয়টি অনুভব করি। এবং আমাদের মাঝে করোনার লক্ষণ দেখা দেয়। পরে নিজ থেকে আমি আইইডিসিআরে যাই। সত্যি কথা বলতে প্রথম একটু ভয় পেয়েছিলাম যে, এখানে আমি জার্মানির মতো চিকিৎসা পাব কিনা? শেষ পর্যন্ত আইইডিসিআরের নির্দেশনা মোতাবেক আমি কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে কোয়ারেন্টিনে থাকি। আমার পরিবারের সদস্য এবং আমি যাদের সঙ্গে দেখা করেছি, মিশেছি তাদেরও হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। পরবর্তীকালে কয়েক দফা টেস্ট করার পর করোনাভাইরাস নেগেটিভ আসলে আমি পরিবারের কাছে ফিরে যাই। আমার পরিবারের অন্য কারো সমস্যা হয়নি।

আইইডিসিআরের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ফয়সাল বলেন, করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই ডাক্তার ফার্সি আমার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখেছেন। সব সময় খোঁজ-খবর নিয়েছেন। আইইডিসিআরের চিকিৎসাসেবায় আমি খুশি। এ জন্য শুকরিয়া আদায় করছি। আপনার (প্রধানমন্ত্রীর) নির্দেশনায় আমি দেশবাসীকে বলব, ঘরে থাকুন, যতদিন ঘরে থাকতে বলা হয় ঘরে থাকুন।

এসময় ফয়সালের পরিবারের কারও সমস্যা হয়েছে কিনা জানতে চান প্রধানমন্ত্রী। জবাবে এই তরুণ বলেন, না কোনো সমস্যা হয়নি। এটা শুনে প্রধানমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেন।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...