‘ইরানে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে করোনা নিয়ন্ত্রণে আসবে’

‘ইরানে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে করোনা নিয়ন্ত্রণে আসবে’
ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি - ফাইল ছবি।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৩ মার্চ ২০২০, ২০:২৪

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ইরানে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। তবে এ জন্য তার দেশের জনগণকে জনসমাগম এড়িয়ে চলার বর্তমান ধারা আগামী দুই থেকে তিন সপ্তাহ অব্যাহত রাখার আহ"ান জানিয়েছেন তিনি। তেহরানে শনিবার তিনি এক ভাষণে ওই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রুহানি বলেন, ইরানে জনসমাগম এড়িয়ে চলার অংশ হিসেবে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পাশাপাশি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ভ্রমণের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। দেশটিতে বর্তমানে ফার্সি নববর্ষের ছুটি চলছে। এ সময়ে লাখ লাখ ইরানি দেশের এক স্থান থেকে আরেক স্থানে ভ্রমণ করলেও এ বছর সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে বেশিরভাগ মানুষ নিজ ঘরে অবস্থান করায় সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রেসিডেন্ট রুহানি। তিনি যতটা সম্ভব জীবনযাত্রার এই প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য আবারো জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় সদর দফতরে দেয়া বক্তৃতায় হাসান রুহানি আরো বলেন, ইরানের অর্থনীতির চাকা থামিয়ে দেয়ার জন্য বিপ্লববিরোধী শক্তিগুলো চক্রান্ত শুরু করেছে। কিন্তু অর্থনৈতিক কার্যক্রম স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিটি পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও তিনি প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এদিকে ইরানের উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী আলীরেজা রায়িসি জানিয়েছেন, দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ২০ হাজার ৬১০ জনে পৌঁছেছে। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে ইরানে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা এক হাজার ৫৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯৯৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। পাশাপাশি এখন পর্যন্ত সাত হাজার ৬৩৫ রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেছেন বলে খবর দিয়েছেন ইরানের উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এদিকে, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস রোগীদের চিকিৎসায় চীনের ব্যবহৃত একটি ওষুধ উৎপাদন করতে যাচ্ছে ইরান।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা আলী রাজ্জাজান এ খবর জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ওষুধটির কাঁচামাল এরই মধ্যে ইরানে এসে পৌঁছেছে এবং এগুলো শুল্ক বিভাগ থেকে ছাড়িয়ে আনার পর দু’দিনেরও কম সময়ের মধ্যে ওষুধটির উৎপাদন শুরু করা হবে। পার্স টুডের খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

চীনে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় ওষুধটি সফল হয়েছে। রাজ্জাজান বলেন, এটি ভাইরাসরোধী একটি স্বতন্ত্র ওষুধ এবং ইরানে করোনার চিকিৎসায় ব্যবহৃত অন্যান্য ওষুধের পাশাপাশি ব্যবহার করা হবে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় করোনা ভাইরাস নির্মূলের চেষ্টা করছে জানিয়ে রাজ্জাজান বলেন, ইরানের বিশেষজ্ঞরা করোনা মোকাবিলায় এরই মধ্যে যেসব গবেষণা করেছেন, তার ফল বিশ্বের বহু দেশ ব্যবহার করছে। প্রায় ১০০ কোটি লোক রোববার নিজেদের ঘরের মধ্যে আবদ্ধ করে রাখবেন। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে ১৩ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড গড়েছে ইউরোপের দেশ ইতালি। সেখানে শনিবার ৭৯৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে প্রতি দুই মিনিটে একজন করে রোগী মারা যাচ্ছেন। এই বৈশ্বিক মহামারী রোধে ৩৫ দেশ লকডডাউন হয়ে আছে। মৃত্যুর দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ইরান। দেশটিতে মৃত্যুর হার আট দশমিক ছয় শতাংশ। যেটা অধিকাংশ দেশের তুলনায় বেশি।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads






Loading...