এক মাছের দাম ৩৬ লাখ!


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৫

সুন্দরবনের কপূরা নদীতে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন ভারতীয় জেলেরা। তাদের জালেই ধরা পড়ে বিশাল আকারের তেলেভোলা মাছ। যার ওজন ৭৮ কেজি ২০০ গ্রাম।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) জেলেরা নদীতে মাছ ধরতে গেলে তাদের জালে মাছটি ধরা পড়ে। সেই মাছ ঘাড়ে করে মাছ বাজারের আড়তে নিয়ে আসে তারা।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাতে মাছটির দাম ওঠে কেজি প্রতি ৪৯ হাজার ৩০০ রুপি। শেষ পর্যন্ত মাছটি বিক্রি হয় ৩৬ লাখ ৪৮ হাজার ২০০ রুপিতে। মাছটি কিনেছে কলকাতার কেএমপি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। মাছটির পেটে মূল্যবান কিছু সম্পদ রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মৎস্যজীবী বিকাশ বর্মন দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরবনের নদীতে মাছ ধরেন। বৃহস্পতিবার সকালেও গোসাবা ব্লকের দুলকির সোনাগাঁও গ্রাম থেকে বিকাশ বর্মন, রাহুল বর্মন, সৈকত বর্মন, কমলেশ বর্মন ও কালিপদ বর নামে পাঁচজন মৎস্যজীবী সুন্দরবনে মাছ ধরার উদ্দেশে রওনা দেন। মাছ ধরতে ধরতে শুক্রবার সন্ধ্যায় তাদের জালে ধরা পড়ে প্রায় সাত ফুট লম্বা এ তেলেভোলা মাছ।

জানা গেছে, এ মাছের পেটে রয়েছে মহামূল্যবান কিছু সম্পদ, যার কারণে এ মাছটির দাম উঠেছিল অনেক। তবে এ মূল্যবান সম্পদ কোনো টাকা পয়সা কিংবা সোনা গহনা নয়, তা হলো এ মাছের পেটে থাকা পটকা। যা দিয়ে তৈরি করা হবে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ, জিনিসপত্র। আর সেগুলো ব্যবহৃত হবে অস্ত্রোপচারের পর সেলাইয়ের কাজে। সেই কারণেই এ মাছের এত দাম হয়েছে।

এ বিষয়ে মৎস্যজীবী বিকাশ বর্মন জানান, বহুদিন ধরেই মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছেন তিনি। তবে প্রতি বছর ভোলা মাছ ধরতে গেলেও এবারই তার জালে এত বড় মাছ ধরা পড়ল।


poisha bazar

ads
ads