দিল্লিতে ৮৫ বছরের মুসলিম বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যা

মানবকণ্ঠ
বৃদ্ধা আকবরি - ছবি : সংগৃহীত।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৫৪,  আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৫৯

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে সংঘাতের মধ্যে দিল্লির গামরি এলাকায় ৮৫ বছর বয়সী এক মুসলিম বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ করেছেন তার সন্তান। নিহত ওই বৃদ্ধার নাম আকবরি।

আকবরির ছেলে সাঈদ সালমানি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে জানান, মঙ্গলবার সকালে বিক্ষুব্ধ জনতা বাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। ওই সময় বাড়িতে আকবরির সঙ্গে চারজন নাতি ছিল। সকাল ১১টার দিকে ঘরে বাচ্চাদের জন্য দুধ না থাকায় আমি বাইরে যাই। পরে আসার পর আমার ছেলের কাছ থেকে জানতে পারি ১৫০ থেকে ২০০ লোক আমাদের বাড়িতে এসে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। এতে আমার মা শ্বাসকষ্টে মারা যান। এছাড়া তার শরীরও পুড়ে যায়। বৃদ্ধ হওয়ায় বাড়িটির তিন তলা থেকে আমার মা আর বের হতে পারেননি।

এদিকে এই ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গেছেন সাঈদ সালমানি চার সন্তান। সালমানি আরো বলেন, আমার মনে হয় আমার মা জীবন বাঁচানোর আকুতি করেছেন। তবে কেউই তার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি।

প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে গত সোমবার শুরু হয় সংঘাত যা এখনো থামেনি। সংঘাতে ভারতের রাজধানীতে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন অন্তত ৩৪ জন। নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে অবৈধভাবে ভারতে অনুপ্রবেশকারী অমুসলিমদের নাগরিক হওয়ার অনুমতি দেয়।

হিন্দু জাতীয়তাবাদী ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন সরকার বলছে, এর ফলে ভারত ধর্মীয় নিপীড়ন থেকে পালিয়ে আসা মানুষের অভয়াশ্রমে পরিণত হবে।

সমালোচকরা বলছেন, এই বিলটি মুসলমানদের একঘরে করতে বিজেপি এজেন্ডার একটি অংশ। গত বছর এটি পাস হওয়ার পরে ব্যাপক প্রতিবাদ-বিক্ষোভ শুরু হয় এবং এর মধ্যে কয়েকটি বিক্ষোভ সহিংস আকার নেয়।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads






Loading...